“আসল চেহারা সামনে আনবো”, নয়া বিতর্ক বলিউডে, নওয়াজের স্ত্রীর কল রেকর্ড টুইটারে

গোটা বলিউড যখন সুশান্ত সিং রাজপুত কে নিয়ে তোলপাড়, তারই মধ্যে নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকি এবং তার স্ত্রী অঞ্জনার ডিভোর্স সংক্রান্ত জটিলতা চরম তিক্ততায় মোড় নিয়েছে। নওয়াজের স্ত্রী তার বৈবাহিক জীবনের যাবতীয় খবর টুইটারে পোস্ট করছেন। তিনি দাবি করেছেন যে, তার স্বামী তাকে মানসিকভাবে অত্যাচার করত। এরপর তিনি পোস্ট করলেন নামাজের একটি ফোন কল রেকর্ড।আলিয়া ওরফে অঞ্জনা এর আগে অভিযোগ করেছেন, নওয়াজ শুধু নয়, তার ভাই সামাস সিদ্দিকী তাকে শারীরিক এবং মানসিকভাবে নিগ্রহ করতেন, এর বিপক্ষে তার স্বামী কোন কথাই বলেননি।

নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকি ও তার স্ত্রীকে একটি আইনি নোটিশ পাঠিয়েছিলেন, যাতে তিনি তার বিরুদ্ধে জালিয়াতি, ইচ্ছাকৃত অসম্মান এবং চরিত্র হননের অভিযোগ এনেছেন।এরপরই সিদ্দিকীর স্ত্রী টুইট করেছেন একটি অডিও ক্লিপ। সেই অডিও ক্লিপে নওয়াজকে তার স্ত্রী প্রশ্ন করছেন,” আমার বিবেক বিক্রির জন্য নয়,আমি কোন মিথ্যে মানহানির মামলা কে ভয় পাইনা। তোমার ভাই তোমার চোখের সামনে আমাকে নির্যাতন করেছে, এরপরেও তুমি তাকে বাঁচানোর চেষ্টা করছো, তোমার যা ইচ্ছা করতে পারো আমি পাত্তা দিই না”।

এই কল রেকর্ডিংয়ে নামাজ তার স্ত্রীর সামনে বেশি কথা বলেননি। যখন তার স্ত্রী প্রশ্ন করেন,”কোথায় তোমার সেই মানহানির মামলা তুমি আমার বিরুদ্ধে করেছ”? উত্তরে অভিনেতা বলেন,”এখনো করিনি তবে করার কথা ভাবছি”।আলিয়া তখন প্রশ্ন করেন যে তার স্বামী তার দেওর কে বাঁচানোর জন্য কতদূর যেতে পারে? এই প্রশ্নের উত্তরে নামাজ তার স্ত্রীকে ঠান্ডা হওয়ার কথা বলছেন।

আলিয়া বরাবরই তার স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ করে এসেছেন যে তার শ্বশুরবাড়ির প্রত্যেক সদস্য তার ওপর মানসিক অত্যাচার করে এসেছেন। তার শশুর শাশুড়ি কোন কর্তব্য পালন করেন না, উল্টে বারবার তাকে অপমান করার চেষ্টা করেন। নওয়াজ ও আলিয়ার দুই সন্তানের কষ্টিদি চেয়েছেন তার স্ত্রী। নামাজ এর পক্ষ থেকে এই ডিভোর্স নোটিশ নিয়ে এখনও সেরকম ভাবে কিছু বলা হয়নি।