সুয়েজ খালে জাহাজ আটকে পড়ায় আমাকে নিশানা করা হয়েছে, কেননা আমি সফলতম মহিলা ক্যাপ্টেন

বিশ্বের একজন সফলতম মহিলা ক্যাপ্টেনের নামে মিথ্যা অভিযোগ আনার পরিপ্রেক্ষিতে পাল্টা অভিযোগ তুললেন মিশরের প্রথম মহিলা শিপ ক্যাপ্টেন মারওয়া এলসলেহডার। সম্প্রতি এম ভি এভার গিভেন নামক একটি পণ্যবাহী জাহাজ সুয়েজ খালে আটকে পড়ে। এমন ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে নাম জড়ায় মিশরের প্রথম মহিলা শিপ ক্যাপ্টেন মারওয়া এলসলেহডারের। অভিযোগের আঙুল ওঠে ক্যাপ্টেনের বিরুদ্ধে।

কিন্তু পরে তদন্ত করে দেখা যায় ঐদিন ওই পণ্যবাহী জাহাজে উপস্থিত ছিলেনইনা শিপ ক্যাপ্টেন মারওয়া এলসলেহডার। তার নামে সম্পূর্ণ ভুল তথ্য ছড়ানো হয়েছে। যার পরিপ্রেক্ষিতে প্রতিবাদ করেন ওই মহিলা ক্যাপ্টেন।

তার পাল্টা অভিযোগ, তার নামে মিথ্যা কুৎসা রটানোর চেষ্টা হয়েছে। তিনি যেহেতু মিশরের প্রথম সফলতম একজন মহিলা ক্যাপ্টেন, তাই ইচ্ছাকৃতভাবেই তাকে অপদস্ত করার চেষ্টা চালানো হয়েছে বলে মনে করেছেন মারওয়া।

এ সম্পর্কে বলতে গিয়ে মারওয়া আরো বলেছেন, একজন মহিলা জাহাজের কাজ করবেন এমনটা মিশরীয় সমাজ এখনো মেনে নিতে পারেনি। কারণ এই কাজে পরিবারের থেকে অনেকদিন দূরে থাকতে হয়।

মারওয়া আরো বলেছেন, যে কাজ করতে আপনার ভালো লাগে, সেই কাজ করার জন্য অন্য কারোর অনুমতি নেওয়ার প্রয়োজন রয়েছে বলে মনে করেন না তিনি।

মারওয়ার অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তার যুক্তি, তার নামে যে মিথ্যা কুৎসা রটানো হয়েছিল তা ইংরেজিতে লেখা হয়েছে। যার ফলে সারা দুনিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে এই ভুল খবর।

এমন ভুল তথ্য কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না বলে দাবি করেছেন মারওয়া।কারণ এভাবে কার্যত বিশ্বজুড়ে তার খ্যাতি নষ্ট করার চেষ্টা চালানো হয়েছে বলেই মনে করছেন মিশরের প্রথম মহিলা শিপ ক্যাপ্টেন।