ওনার সঙ্গে ছিলাম অনেকদিন, ক্ষমতায় টিকে থাকতে সব কিছুই করতে পারেন: অর্জুন সিং

একুশের বিধানসভা নির্বাচন উপলক্ষে এমনিতেই সরগরম রাজ্য রাজনীতি। তার উপর আবার নন্দীগ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আঘাত পাওয়ার ঘটনা নিয়ে বাংলার রাজনীতির পারদ আরও একধাপ চড়েছে। তৃণমূলের তরফ থেকে দাবি করা হয়েছে ইচ্ছাকৃতভাবে বিরোধীরাই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আঘাত করার উদ্দেশ্যে এমনটা করেছে। বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি। আগামী কয়েকদিন হুইল চেয়ারে বসেই রাজনৈতিক প্রচার কার্যে অংশগ্রহণ করবেন তৃণমূল নেত্রী।

প্রসঙ্গত এমন ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে তৃণমূলের তরফ থেকে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ করা হলেও বিরোধী বিজেপি শিবির কিন্তু তা মানতে নারাজ। তারা বরং দুর্ঘটনার তত্ত্বই তুলে ধরেছেন। তবে ঘটনা প্রসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে মানুষের সহানুভূতি আদায়ের প্রচেষ্টার জন্য নাটক করার মতো গুরুতর অভিযোগ তুললেন বর্তমান বিজেপি নেতা অর্জুন সিং।

অর্জুন সিং একসময় তৃণমূল শিবিরেই ছিলেন। তার দাবি, ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য মুখ্যমন্ত্রী অনেক কিছুই করতে পারেন। বর্তমানে তিনি যা করছেন তা আসলে এক ধরনের “রাজনৈতিক গিমিক”, এভাবে কার্যত সাধারণ মানুষের সহানুভূতি আদায় করেই নির্বাচনে কিস্তিমাত করতে চাইছেন তৃণমূল সুপ্রিমো।

অর্জুন সিং এও দাবি করেছেন, একুশের বিধানসভা নির্বাচনে নন্দীগ্রামে হারবেন মমতা, তা তিনি নিশ্চিতভাবেই বুঝেছেন। তাই প্রচারের আর কোনো উপায় খুঁজে না পেয়ে এমনটা করেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। অর্জুন সিংয়ের দাবি, এর আগেও এমনটা করেছেন দিদি। এর আগে এক ট্রাক ড্রাইভারকেও ফাঁসিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। অনেক বছর তৃণমূল দলে থেকেছেন অর্জুন সিং। তাই দিদির প্রতিটি পদক্ষেপ ভালোভাবেই বুঝতে পারেন তৃণমূলের প্রাক্তন সদস্য।