গায়ের রং নিয়ে শুনতে হয়েছিল অপমানজনক মন্তব্য, এবার তিনিই বলিউডকে দিলেন জাতীয় পুরস্কার

আশীষ বিদ্যার্থী! নামটা শুনলেই চোখের সামনে ভেসে উঠবে এক ভয়ঙ্কর খল চরিত্র যাকে আমরা টিভির পর্দায় হামেশাই দেখে থাকি। দক্ষিণী সিনেমা জগতের হেভিওয়েট খল চরিত্রাভিনেতা হিসেবে বি-টাউনের জায়গা করে নিয়েছেন তিনি। তবে বি-টাউনে আজকের এই জায়গা গড়ে তুলতে তাকে কিন্তু কম কাঠ-খড় পোড়াতে হয় নি। বিশেষত তার গায়ের রং যেখানে প্রথমদিকে তাঁর কেরিয়ারে বাধা হয়ে দাঁড়িয়ে ছিল।

চামড়ার কালো রং এখনো আমাদের এই তথাকথিত আধুনিক সমাজে বিশেষ সমাদৃত নয়। রেসিজমের আঁচর আশীষ বিদ্যার্থীর গায়েও লেগেছিল। ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে গায়ের কালো রংয়ের কারণেই নাকি বি-টাউনে তাকে কাজ দেওয়া হতো না। তাকে সরাসরি শুনতেও হয়েছে, তার গায়ের রং ক্যামেরার পর্দায় ভালো লাগবে না। তবে তার অভিনয় দক্ষতাকে ছাপিয়ে যেতে পারেনি তার রং।

বলিউডের তথাকথিত ধ্যান-ধারণা বদলিয়ে রুপোলী জগতে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছেন আশীষ বিদ্যার্থী। টেলিভিশনের পর্দায় দর্শক কিন্তু তার গুণকে সমাদর করেছেন। বর্তমানে তিনিও বলিউডের এক উজ্জ্বল নক্ষত্র। শুধু তাই নয় নিজের কাজের বাইরেও তিনি সাধারণ মানুষের কাছে একজন মোটিভেশনাল স্পিকার হিসেবে সমাদৃত হয়েছেন।

বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে ঘুরে সাধারণ মানুষকে মোটিভেট করেন আশীষ বিদ্যার্থী। বিভিন্ন সংস্থার তরফ থেকে ডেকে পাঠানো হয় তাকে। তিনি তার জীবনের উত্থান-পতনের গল্প শুনিয়ে সকলকে অনুপ্রেরণা জোগান। তার অভিনয় দেখার পাশাপাশি তার বক্তৃতা শোনার জন্যেও অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে থাকেন দর্শক-শ্রোতারা। রেসিজম তাকে দমিয়ে রাখতে পারেনি।