“কাউকে ঠকাতে চাই না”, দুই প্রেমিকাকে একই মন্ডপে বিয়ে, হলো একত্রে সহবাস, হতবাক গোটা দেশ

প্রতিদিনই সোশ্যাল মিডিয়ায় কতই না ভিডিও ভাইরাল হয় যা দেখে তাজ্জব হয়ে যায় মানুষজন। এবার যে ভিডিওটি ভাইরাল হলো তাতে দেখা গিয়েছে একজন প্রেমিক আর সাথে আছে দুইজন প্রেমিকা। এই সম্পর্কটা কিন্তু শুধু প্রেমই শেষ হয়নি গড়ালো বিয়ে পর্যন্ত। একই ছাতনা তলাই সাত পাকে বাঁধা পড়লেন তিনজন। দুইজন কন্যা এবং 24 বছরের একজন পুত্র।ঘটনাটি ঘটেছে ছত্রিশগড়ে। পাত্রের নাম চান্দু মৌর্য। তিনি পেশায় একজন কৃষক।একই সাথে দুই জন নারীর প্রেমে পড়েন। কাউকেই তিনি ঠকাতে পারবেন না তাই একই সাথে দুইজন কন্যাকে বিবাহ করলেন।

জানা যায়, চান্দু প্রথমে ২১ বছর বয়সী সুন্দরী কাশ্যপের প্রেমে পড়েছিলেন। তারপরে তাঁকে নিজের বাড়িতে নিয়ে আসে তোলেন। ঠিক এক মাস পরে, বিয়েবাড়িতে ২০ বছর বয়সী হাসিনার সঙ্গে পরিচয় হয় তাঁর। প্রেমে পড়েন তাঁরা।

সুন্দরী কাশ্যপ চান্দুর মুখের সমস্ত ঘটনা শোনার পরে চান্দুর সাথে থেকে যেতে চেয়েছেন। অবশেষে তিনি দুই প্রেমিকাকে নিজের বাড়িতে নিয়ে এসে তোলেন। এইভাবে এক বছর থাকার পর। চান্দু বিবাহের সিদ্ধান্ত নেন। দুইজনের বোঝাপড়ায় ৫ই জানুয়ারি তাদের বিবাহ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। বিয়ের কার্ড ছাপানো হয় এমনভাবে যেখানে পাত্রীর নামের জায়গায় দুই পাত্রীর নাম এবং পরিচয় স্থান পেল। ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে তাদের বিয়ের কার্ডটি।বিয়েতে নিমন্ত্রিত পরিজন সংখ্যা ছিল ৫০০ জন। তিনজন একসঙ্গে সহবাস করেছেন বলেও খবর পাওয়া গেছে।