“নিজের ধর্মকে আঘাত করতে চাইনি”, টুইট মুছে বিতর্কে জল ঢালতে চাইছেন সায়নী ঘোষ

হিন্দু ধর্মের দেবদেবীদের নিয়ে মজা করা, তাদের অপমান করা, বিভিন্নভাবে হিন্দু ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করা সংক্রান্ত বিভিন্ন প্রসঙ্গই সাম্প্রতিককালে নজরে আসছে।বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ার ট্রেন্ডিংয়ে রয়েছে বিজেপি নেতা তথাগত রায় এবং টলিউড অভিনেত্রী সায়নী ঘোষের বিবাদ। সায়নী ঘোষের টুইটার অ্যাকাউন্টের পুরনো একটি পোস্ট তুলে ধরে তার বিরুদ্ধে হিন্দু ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত হানার অভিযোগ এনেছেন তথাগত রায়।

এতদিন টুইট এবং পাল্টা টুইটের মাধ্যমে সোশ্যাল সাইটে উভয়পক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডা চলেছে। এবার সেই টুইট যুদ্ধ আইনি লড়াইয়ের পথে এগলো। ওই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে রবীন্দ্র সরোবর থানায় সায়নী ঘোষের বিরুদ্ধে একটি এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে টুইটারে একটি টুইট করেন সায়নী ঘোষ।

সেই বিতর্কীত টুইটটিতে দেখা যায় শিবলিঙ্গের মাথায় কন্ডোম পরানো হচ্ছে। এইডস রোগের সচেতনতা ছড়াতে শিব লিঙ্গের মাথায় কনডম পড়াচ্ছে বিজ্ঞাপনের অ্যানিমেটেড ম্যাসকট ‘বুলাদি’। পোস্টে লেখা রয়েছে, “বুলাদির শিবরাত্রি!” সেই পোষ্টের ক্যাপশনে সায়নী লিখেছেন, “ভগবান এর থেকে বেশী কার্যকরী হতে পারেন না!”

উক্ত পোস্টে হিন্দু ধর্মের পবিত্রতা নষ্ট হয়েছে বলে দাবি করেছেন তথাগত রায়। অপরপক্ষে সায়নীর দাবি, তার অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে এই বিতর্কিত পোস্টটি করা হয়েছিল। সায়নী এও বলেছেন, ওই বিতর্কিত পোস্টটি তার নজরে আসতেই তিনি সেই পোস্টটি ডিলিট করে দেন। এমনকি ঐ পোস্টের চরম নিন্দা করে তিনি অপর একটি পোস্ট করেছিলেন বলে জানান।