প্রবল গতিতে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘গতি’, আছড়ে পড়বে সোমবারই, জারি হল উচ্চ সতর্কতা

ঘূর্ণিঝড়ের নাম শুনলেই কেঁপে ওঠে দক্ষিণবঙ্গ বাসী। কারণ কিছুদিন আগেই আমফানের দাপটে সব কিছুই তছনছ হয়ে গিয়েছিল, সেই দগদগে ঘা এখনও মানুষের মনে বিদ্যমান‌। তার মধ্যেই আবার এক সাইক্লোনের ইঙ্গিত দিল আবহাওয়া দপ্তর। সামনেই পুজো, তার মধ্যে এই খবরে থরহরি কম্প। এই ঘূর্ণিঝড়ের নাম রাখা হয়েছে গতি, এই ঘূর্ণিঝড়ের দাপট আগেরটার মতোই হবে বলে জানিয়েছে, তবে বাংলার জন্য একটি ভালো খবর শুনিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর, কারণ এই সাইক্লোনের ফলে তেমন একটা প্রভাব পরবে না বাংলায়।

তবে পুজোর আগে বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা আছে বলে জানিয়েছে তারা। গত ৩০ সেপ্টেম্বর পূর্ব মধ্য বঙ্গোপসাগরে তৈরী হয়েছিল নিম্নচাপ যা কিনা শক্তি সঞ্চয় করে ঘূর্ণিঝড়ের আকার ধারণ করেছে। এবার সেটাই বিভিন্ন রাজ্যের উপকূলের ওপরে প্রভাব ফেলবে। ইতিমধ্যে আজ সোমবার সেটা প্রবেশ করেছে অন্ধ্রপ্রদেশ উপকূলে। ৬৫ কিমি বেগে ঝড় হাওয়া বইবে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর,যার ফলেই লাল সতর্কতা জারি করার সম্ভাবনা রয়েছে।

এই নিম্নচাপ নাকি সময়ের সাথে সাথে শক্তি সঞ্চয় করবে, আর তারফলেই নাকি সেটা বর্তমান পূর্ব মধ্য বঙ্গোপসাগর থেকে উত্তর পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে অগ্রসর হবে। আর তারফলেই ওড়িশা, অন্ধ্রপ্রদেশ বিহার সব জায়গায় ভালো প্রভাব পরবে, এদিকে আবার কলকাতার আকাশ সকাল থেকেই মেঘাচ্ছন্ন,তাই আর্দ্রতা জনিত অস্বস্তি ভ্যাপসা গরম শহর জুড়ে, তবে এখানে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই,হালকা মাঝারি বৃষ্টি হওয়ার কথা জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর।