পুজোর আগে মানবিক মমতা, এক লক্ষ হকারকে ২০০০ টাকা করে ভাতা প্রদান

আর মাত্র কয়েকটা দিন পরেই বাঙ্গালী তাদের সবথেকে বড় পার্বণ নিয়ে মেতে উঠবে। পূজা উপলক্ষে এর আগেই কলকাতায় প্রতিটি ক্লাবকে ৫০ হাজার টাকা অনুদান দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি, এ বছরের মতো মন্ডপের ইলেকট্রিক বিলও মুকুব করে দিয়েছেন তিনি। পূজা উপলক্ষে এবার হকারদের জন্যেও নতুন পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করলেন তিনি।

সম্প্রতি নবান্নে অনুষ্ঠিত একটি ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পুজোর উদ্বোধন করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানেই রাজ্যবাসীর উদ্দেশ্যে ভাষণ দিতে গিয়ে তিনি জানান, রাজ্যের প্রায় এক লক্ষ হকারকে দুই হাজার টাকা করে ভাতা দেবে রাজ্য সরকার। পাশাপাশি নবান্নের ভাষণ মঞ্চে দাঁড়িয়ে বিরোধীদের প্রতি কার্যত কড়া বার্তা দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী জানালেন, “আমরা ছিলাম, আমরা আছি, আমরা থাকবো”।

উল্লেখ্য, আসন্ন একুশের বিধানসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজ্যে তৃণমূল এবং বিজেপির মধ্যে কার্যত তুমুল সংঘাত বেধেছে। বিজেপি ইতিমধ্যেই বলতে শুরু করেছে, ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের পর থেকেই নাকি এ রাজ্যে তৃণমূলের অস্তিত্ব নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে। এদিনের ভাষণ মঞ্চ থেকে তাই মুখ্যমন্ত্রী বিরোধী বিজেপি শিবিরের প্রতিই রীতিমতো চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

এদিন, রাজ্যের প্রায় ১০ জেলার ১১০টি পুজো উদ্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পুরুলিয়ার পুজো উদ্বোধন করতে গিয়ে তিনি বলেন, “যদি দলের তরফ থেকে কোন ভুল ত্রুটি হয়ে থাকে তাহলে ক্ষমা করে দিন”। আসলে বিগত লোকসভা নির্বাচনে পুরুলিয়া জেলা থেকে আশানুরূপ ফল পায়নি তৃণমূল। তাই আসন্ন বিধানসভা নির্বাচন উপলক্ষে পুরুলিয়া জেলাবাসীর কাছে এভাবেই ক্ষমা প্রার্থনার মাধ্যমে ভোট প্রচার করলেন তিনি।