ভালোবাসার টা’নে যেসব সেলিব্রিটিরা ধর্ম প’রি’ব’র্ত’ন করেছেন, র’ই’লো তা’লি’কা

ভালবাসলে মানুষ যে কোন কাজ করে ফেলতে পারে। স্থান কাল পাত্র কোন কিছুই তোয়াক্কা করে না তারা। ভালোবাসার প্রেমে অন্ধ হয়ে অনেক সময় ধর্ম পাল্টে ফেলতে পারে প্রেমিক-প্রেমিকারা। শুধুমাত্র আমজনতা নয় এমন কিছু বলিউড তারকা রয়েছেন যারা কোনো না কোনো কারণে ধর্মান্তরিত হয়েছেন।চলুন দেখে নেওয়া যাক, সেই সমস্ত তারকাদের নাম।

এ আর রাহমন: রহমান প্রথম জীবনে হিন্দু ছিলেন তার আসল নাম এ এস দিলীপ কুমার। চিরকালই সুফি সংগীতের প্রতি তীব্র আকর্ষণ ছিল তার। সঙ্গীত এর জন্যই তিনি ইসলাম ধর্মের প্রতি প্রবল টান অনুভব করেন এবং ধর্মান্তরিত হয়ে যান ১৯৮৪ সালে। নতুন করে আমরা তাকে নতুন নামে চিনতে শুরু করি।

ধর্মেন্দ্র হেমা মালিনী: এই দুই তারকার প্রেমের কথা আমরা সকলেই জানি। হেমা মালিনী যখন বিয়ের পিঁড়িতে দাঁড়িয়ে, তখন ধর্মেন্দ্রর তাকে জানান তিনি তাকে কতটা ভালবাসেন এবং তাকে ছাড়া তিনি বাঁচবেন না। কিন্তু অন্যদিকে ধর্মেন্দ্র নিজেও তখন বিবাহিত। ধর্মেন্দ্রর স্ত্রী কোন ভাবেই তাকে ডিভোর্স দেবেন না বলে স্থির করেন। এমতাবস্থায় আর কোন রাস্তা না পেয়ে অবশেষে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে একে অপরের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন ধর্মেন্দ্র এবং হেমা মালিনী।

মমতা কুলকার্নি: নব্বইয়ের দশকের সিনেমা তে মমতা কুলকার্নি একজন নামী দামী অভিনেত্রী হিসেবেই পরিচিত ছিলেন। বৈবাহিক জীবনে প্রবেশ করার আগে তাকে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করতে হয়েছিল।

শর্মিলা ঠাকুর: বাঙালি কন্যা শর্মিলা ঠাকুর যখন বিয়ে করেন পতৌদি নবাব বংশের রাজপুত্র মনসুর আলী পাতাউদি কে তখন তাকে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করতে হয়।

আমৃতা সিংহ: বলিউডে অভিনয় করতে করতেই সাইফ আলী খানের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন অমৃতা সিংহ। একে অপরের সঙ্গে বয়সের ফারাক থাকলেও বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন তিনি। পরবর্তীকালে সাইফ আলী খানকে বিয়ে করার সময় ইসলাম ধর্মে দীক্ষিত হতে হয় তাকে।

আয়েশা টাকিয়া: আয়েশা টাকিয়ার বাবা হিন্দু ধর্মালম্বী হলেও মা ছিলেন ব্রিটিশ ইন্ডিয়ান। পরবর্তী জীবনে ইসলাম ধর্মালম্বী ফারহান আজমি সঙ্গে প্রেমের বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন আয়েশা টাকিয়া। বিয়ে করার সময় তিনি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছিলেন, যদিও এ বিষয়ে তিনি নিজে কোনোদিন স্পষ্ট করে কিছু বলেননি।