ড্রাগস মামলায় ১৪ দিনের জেল হেফাজত ভারতী ও স্বামী হর্ষের, রায় দিলো মুম্বই আদালত

এবার এন সিবির দাবি মেনে নিল মুম্বাই আদালত , এবার তাদের আর্জি শুনেই কয়েডিয়ান ভারতী সিং ও তার স্বামী হর্ষকে ১৪ দিনের জেল হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিল মুম্বাই হাইকোর্ট। এখন হিসেব অনুযায়ী ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত তাদের জেল হেফাজতেই থাকতে হবে, যার ফলে এখন অনেকটাই চাপে তারা। তাছাড়া তাদের দূজনের সাথে বাকি দুজন ড্রাগ ডিলারকে পাকরাও করা হয়েছে, তাদেরও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে পুলিশী হেফাজতে রাখার। কিন্তূ এই নির্দেশের পর তারা তাদের বক্তব্য রাখতে চেয়েছিল, আগামীকাল সোমবার শুনানি তার আগে তাদের কথা শোনা হবে।

প্রথম দিকে হর্ষের হেফাজতের দাবি করা হয়েছিল ও ভারতীর জেল হেফাজতের দাবি করা হয়েছিল কিন্তু পরে দুইজনকেই জেল হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আসলে মাদক আইন হিসেবে হর্ষের নামে ২৭এ ধারায় মাদক দ্রব্যের পাচার অর্থ পরিবহণে সাহায্য করেছে। এরপরেই এনসিবির আইনজীবী দুজনের জেল হেফাজতের দাবি জানিয়েছিল।

গতকাল ভারতি সিংকে গ্রেফতার করার পর আজ রবিবার তার স্বামী হর্ষকে গ্রেফতার করে এনসিবি। তাকে দীর্ঘক্ষণ জিজ্ঞাসা বাদ করার পরেই গ্রেফতার করা হয়।তার বিরুদ্ধে নিষিদ্ধ মাদক দ্রব্য সেবনের অভিযোগ আনা হয়, এদিকে সাথে তারা যে গাঁজা সেবন করতেন সেটাও জানা যায়, তাদের বাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয় ৮৬.৫ গ্রাম গাঁজা।

সুশান্তের মৃত্যুর পর এখন একের পর এক গাঁজা সেবন কারীদের নাম ঊঠৈ আসছে, বিশেষ করে বলিউডের সাথেই জড়িত এই সব নাম। গত কয়েকদিন আগেই অর্জুন রামপাল ও তার বান্ধবী গ্যাব্রিয়েলা ডেমেত্রিয়াদেসেক জিজ্ঞাসা বাদ করা হয়েছে,এমনকি তাদের বাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়েছে। এবার বলা যেতে পারে মাদক কান্ডের মধ্যে নাম লেখালো ভারতী ও তার স্বামী । তবে এন সি বি জানিয়েছেন বলিউডের আরও নাম তাদের কাছে আছে, সবাইকে জিজ্ঞাসা বাদ করা হবে।