ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস উত্তরে, দক্ষিণবঙ্গ নিয়েও বড় আপডেট দিল হাওয়া অফিস

আজ সকাল থেকেই কলকাতার মানুষ গরমে হাঁসফাঁস করছে, সকাল থেকেই কলকাতার আকাশ মেঘাচ্ছন্ন আর তারফলেই এখন শহর বাসী অস্বস্তির শিকার। কোনোভাবেই তারা স্বস্তি পাচ্ছে না। চলতি সপ্তাহের শুরুতেই দেখা যাচ্ছে তাপমাত্রার ওঠা নামা ও আর্দ্রতা জনিত অস্বস্তির বৃদ্ধি। তবে এই সব কারণেই দেখ গেছে অনেক জায়গায় ভারী বৃষ্টি পর্যন্ত হয়েছে, আর সেই কারণেই অনেক জায়গায় জল পর্যন্ত জমে গেছে। আজ সকাল থেকে কলকাতার তাপমাত্রা অনেকটাই বৃদ্ধি পেয়েছে। আর সেটা ৩০ ডিগ্রীর ঘরে।

তবে শহর জুড়ে গড়ে তাপমাত্রা সর্বনিম্ন ২৬ ডিগ্রী ও সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৪ ডিগ্রীর ঘরে। এদিকে বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ ৯৬% র ঘরে। তবে তুলনামূলকভাবে তাপমাত্রার ওঠা নামার কারণেই যে শহর বাসী ঝড় জলের মুখে পরছে একবার ও আরেকবার একেবারে অস্বস্তির মধ্যে। কিন্তু এই আবহাওয়ায় আগামী কয়েকদিনের মধ্যে রাজ্য জুড়ে শুরু হতে চলেছে বৃষ্টি। বিশেষ করে এখন উত্তরবঙ্গের ৫ জেলায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে।

গত বুধবার থেকেই এই বৃষ্টি শুরু হয়েছে উত্তরবঙ্গে তবে আগামীকাল শনিবার থেকে এই বৃষ্টি বাড়বে বলে জানা গেছে। দার্জিলিং কালিংপং আলিপুরদুয়ার জলপাইগুড়ি, কোচবিহার সব জায়গায়। আগামী রবিবার সোমবার পর্যন্ত বৃষ্টির আশঙ্কা আছে রাজ্যে। উত্তরবঙ্গের সাথে দক্ষিণবঙ্গেও একটা হালকা মাঝারী বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে। উত্তরবঙ্গে ভারী বৃষ্টির কারণে বন্যা দেখা দিতে পারত, কিন্তু এখনও সেই আশঙ্কা নেই বললেই চলে।

এখন মৌসুমী অক্ষরেখা বিরাজ করছে পশ্চিমাংশে হিমালয়ের পাদদেশ এলাকায়, আর সেটাই গয়া, মণিপুর হয়ে ফারাক্কা পর্যন্ত বিস্তৃত। এখন ভয় একটাই পশ্চিমী ঝঞ্ঝার সাথে পূবালী হাওয়ার সংঘাত। আর তারফলেই আজ হালকা মাঝারী বৃষ্টি হতে পারে উত্তরবঙ্গে, তবে আগামী রবিবার এই বৃষ্টির পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে বলে জানা গেছে। আজ শুক্রবার থেকে উত্তর পূর্ব ভারতেও একটা প্রভাব পরতে চলেছে। অসম, মেঘালয় সব জায়গায় এই বৃষ্টি শুরু হতে চলেছে।এদিকে দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলো বাদ পরছে না কোনোভাবেই। সেখানেও হালকা মাঝারি বৃষ্টি হবে বলে জানা গেছে।