এখনো পাননি স্বাস্থ্যসাথী কার্ড? সহজেই হাতে পাওয়ার জন্য আলাদা বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী

একুশের বিধানসভা নির্বাচনের প্রেক্ষাপটে রাজ্য সরকারের প্রণীত “দুয়ারে দুয়ারে সরকার” প্রকল্পের মধ্যে সবথেকে প্রয়োজনীয় এবং সর্বাধিক জনপ্রিয় প্রকল্পটি হলো “স্বাস্থ্য সাথী” প্রকল্প। এই প্রকল্পের আওতায় রাজ্যের প্রায় ১০ কোটি মানুষ আসতে চলেছেন। স্বাস্থ্য সাথী কার্ডের মাধ্যমে তারা যেকোনো সরকারি অথবা বেসরকারি হাসপাতালে সরকারি সাহায্যে চিকিৎসা করাতে পারবেন।

তবে এই প্রকল্পকে ঘিরে ইতিপূর্বে বিস্তর অভিযোগ উঠেছে। বেশ কিছু ক্ষেত্রে কার্ড থাকা সত্ত্বেও পরিষেবা না পাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ এখনো এই কার্ড হাতে পাননি। এদিকে একুশের বিধানসভা নির্বাচন ঘিরে প্রস্তুতি তুঙ্গে। বিধানসভা নির্বাচনের কাজ শুরু হয়ে গেলে কার্ড প্রদান কর্মসূচীতে বাধা পড়তে পারে। এই সমস্যার সমাধানে এবার অস্থায়ী স্মার্ট কার্ড প্রদান করতে চলেছে রাজ্য সরকার।

সম্প্রতি হুগলির পুরশুড়ায় আয়োজিত রাজনৈতিক সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী এমনটাই জানিয়েছেন। নির্বাচনের জন্য যাদের কার্ড দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না তাদের আপাতত অস্থায়ী স্মার্ট কার্ড প্রদান করা হবে। তারা এই কার্ড ব্যবহার করে চিকিৎসা পরিষেবা নিতে পারবেন। এদিকে বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে যে রোগী ফেরানোর অভিযোগ উঠেছে তার সমাধান হিসেবে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে সরাসরি থানায় অভিযোগ করুন!

স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পকে কেন্দ্র করে সাধারণের মনে যে অভিযোগগুলি উঠেছে তার সমাধানে হুগলির পুরশুড়ার সভামঞ্চের আয়োজন করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানেই তিনি জানালেন, রাজ্যের বহু মানুষের হাতে ইতিমধ্যেই স্বাস্থ্য সাথী কার্ড পৌঁছে গিয়েছে। তবে যান্ত্রিক গোলযোগের কারণে বেশ কিছু মানুষ এখনও কার্ড পাননি। তাদের জন্যই বিকল্প ব্যবস্থা চালু করছে রাজ্য সরকার। পাশাপাশি, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ থাকলে কার্ডের পেছনে যে নাম্বার রয়েছে সেই নম্বরে সরাসরি ফোন করে অভিযোগ জানানোর পরামর্শ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।