মন্ত্রী হয়েছেন সাড়ে ৪ বছর, একটিও ফাইল আসেনি: ঘনিষ্ঠ মহলে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন লক্ষ্মীরতন শুক্লা

সামনেই একুশের বিধানসভা নির্বাচন, তার আগেই তৃণমূলের শিবির থেকে একের পর এক নেতা মন্ত্রীরা তাদের পদ ছেড়ে চলে যাচ্ছে। গতকাল ফের এক ভাঙন তৃণমূলের শিবিরে। ক্রীড়া দফতরের প্রতিমন্ত্রী লক্ষ্মী রতন শুক্লা, গতকাল মঙ্গলবার তৃণমূল থেকে ইস্তফা দিয়েছেন। কিন্তু হঠাৎ করে কেন এই সিদ্ধান্ত তার? সেটা নিয়েই উঠেছে প্রশ্ন। তবে সূত্রের মাধ্যমে জানা যাচ্ছে, তিনি অভিযোগ করেছেন গত সাড়ে ৪ বছরের নেতৃত্বে তার কাছে আসে নি কোনো ফাইল। নিজের থেকে কাজ করা হলেও দেওয়া হয়েছে বাধা, মন্ত্রী হওয়া সত্ত্বেও দেওয়া হয় নি কোনো প্রশাসনিক ক্ষমতা।

বিশেষ করে তার ঘনিষ্ঠ মহলের দাবি, এতদিন মন্ত্রী হওয়া সত্ত্বেও দেওয়া হয়নি উপযুক্ত সম্মান, দেওয়া হয় নি কোনো ফাইল, কাজের কোনো দায়িত্ব। তাই এবার তিনি তার ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন এই সিদ্ধান্তের মাধ্যমে। এখানেই শেষ না, লক্ষ্মীরতন শুক্লা আরো অভিযোগ করেন, তাকে গত ৬ মাস আগে হাওড়ার তৃণমূলের সভাপতি বানানো হয়, এর পরেই তিনি বলেন জেলা সভাপতি পরিবর্তন করা হলে দলীয় সংগঠনগুলোকে পরিবর্তন করা হয়, সেই কথা মাথায় রেখেই তিনি মন্ত্রী অরূপ রায় এবং রাজিব বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে কথা বলেন, একটি নতুন তালিকা তৈরি করে দলের নেতৃত্বের কাছে পাঠান।

কিন্তু তারপরেও দলের জেলা স্তরে কোনো কমিটি তৈরী করা হয় নি এমনকি ব্লক সভাপতিকে ও পরিবর্তন করা হয়নি। তবে তিনি মন্ত্রীত্ব ছাড়লেও ,ছাড়েননি বিধায়ক পদ। তার মেয়াদ রয়েছে এখনও ৪ মাস। তাই তিনি এই কয়েক মাস নিজের মতো করে মানুষের পাশে দাঁড়াতে চান।ও তাদের সাহায্য করতে চান। এখন থেকে ক্রিকেটের দিকে আরো বেশী মনোনিবেশ করতে চান তিনি। এমনটাই জানিয়েছে তার ঘনিষ্ঠ মহল।