বোনকে রক্ষা করতে গিয়ে ক্ষতবিক্ষত হলো দাদা, সাহসিকতার জন্য উপহার দেওয়া হলো বক্সিং বেল্ট

এই জগতে সবথেকে অনবদ্য হল ভাই বোনের সম্পর্ক। সারাজীবন একে অপরের সঙ্গে লড়াই করলেও যখন সময় আসে তাকে অপরের থেকে দূরে যাবার তখনই বোঝা যায় তাদের সম্পর্কের গারতা। দাদা বোনের সম্পর্ক চিরকালই হয় আলাদা। তবে বোনের কোন বিপদ হলে কোন দাদা চুপ করে থাকতে পারে না। তেমনই একটি সাহসিকতার পরিচয় আমরা পেলাম একটি ভিডিও দেখে। ঘটনাটি ঘটেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তে।

যেখানে বোনকে বাঁচাতে গিয়ে কুকুরের সঙ্গে লড়াই করেছে একটি ছয় বছরের ছেলে। কোন বিপদের পরোয়া না করেই ছেলেটি চার বছরের ছোট বোনকে বাচানোর জন্য ঝাঁপিয়ে পড়েছিল কুকুরের ওপর।

সংবাদমাধ্যম থেকে জানা যাচ্ছে যে, এক বছর আগেই ব্রিজারের বোনকে একটি হিংস্র কুকুর আক্রমণ করে। কুকুরটি ছিল জার্মান শেফার্ড। হঠাৎ করে ছোট্ট শিশুটিকে রেখে তার ওপর আক্রমণ করে কুকুরটি। সেই মুহূর্তে আর কিছু ভাবার সুযোগ পায়নি তার দাদা। মাথায় একটা চিন্তা ছিলো বোনকে বাঁচাতে হবে।

কুকুরের সাথে রীতিমতো যুদ্ধ করে বোনকে বাঁচিয়ে আনে সে। যুদ্ধের পরে রীতিমতো ক্ষতবিক্ষত হয়ে যায় ব্রিজার। ৯০ টি সেলাই পড়েছে তার মুখে। ঘটনাটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে গেলে সকলেই প্রশংসা করেছেন ছোট্ট ছেলেটির সাহসিকতার।
এরকম আজকে ঐতিহাসিক ঘটনাবলী মনে করেছে ওয়ার্ল্ড বক্সিং কাউন্সিল। তাই আজীবন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করে তাকে সর্বাধিক প্রাপ্য বেল্ট দেওয়া হয়েছে সম্মানিত করে।