সংবিধান মানছেন না রাজ্যপাল, ধনকড়কে সরাতে রাষ্ট্রপতিকে স্মারকলিপি দিলো তৃণমূল

এই রাজ্যের রাজ্য এবং রাজ্যপালের সংঘাত নতুন কিছু নয়। রাজ্যের রাজ্যপাল এবং রাজ্য সরকার প্রায়শই বিভিন্ন বিষয় নিয়ে একে অপরের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। বিগত দিন গুলিতে রাজ্যপালকে গুলিতে রাজ্যপালকে বারংবার রাজ্য সরকারের বিভিন্ন নিয়ম নীতি বিশেষত রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন তুলতে দেখা গিয়েছে। এবার রাজ্যপালের বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে রাষ্ট্রপতির দরবারে পৌঁছে গেলেন তৃণমূলীয় নেতা নেত্রীরা।

পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় সংবিধান মানছেন না। তিনি বারংবার রাজ্যের প্রশাসনের বিরুদ্ধে কথা বলছেন! আইন-শৃঙ্খলা প্রসঙ্গে প্রশ্ন তুলে রাজ্য পুলিশকে রীতিমত ভয় দেখাচ্ছেন! এসংক্রান্ত একাধিক অভিযোগ নিয়ে রাজ্যপালের বিরুদ্ধে ১৫৬(১) ধারা প্রয়োগ করে তাকে রাজ্যের ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দেওয়ার দাবি নিয়ে রাষ্ট্রপতি দরবারে হাজির হলেন তৃণমূলের তাবড় তাবড় নেতাকর্মীরা।

লোকসভার দলনেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, দলের মুখ্য সচেতক কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়, কাকলি ঘোষ দস্তিদার, ডেরেক ও’ব্রায়েন, সুখেন্দু শেখর রায়েরা এদিন রাজ্যপালের বিরুদ্ধে একটি ছয় পাতার স্মারক লিপি রাষ্ট্রপতির কাছে জমা দিয়েছেন। এই স্মার্ট লিপিতে রাজ্যপাল রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে কখন, কবে, কি মন্তব্য করেছেন তার একটি বিস্তারিত বিবরণ দেওয়া রয়েছে।

উল্লেখ্য, রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা প্রসঙ্গে বরাবরই রাজ্য সরকারকে দুষেছেন রাজ্যপাল। কেন্দ্রীয় নেতা-নেতৃত্বদের উপর আক্রমণ প্রসঙ্গে রাজ্যের মুখ্যসচিব এবং পুলিশের ডিজিকেও নিজের দপ্তরে ডেকে পাঠিয়েছিলেন তিনি। রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বারংবার ধারালো মন্তব্য করেছেন তিনি। একুশের নির্বাচনের পূর্বে রাজ্যে ৩৫৬ ধারাবলে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা প্রসঙ্গে সওয়াল করেছিলেন তিনি। যা নিয়ে রাজ্যে কম বিতর্ক সৃষ্টি হয়নি।