আচমকা ঝড়ে তুফানগঞ্জের চিলাখানায় ক্ষতিগ্রস্ত ৪০টি বাড়িঘর

গত রাতের ঝড়ে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তুফানগঞ্জ ১ নম্বর ব্লকের চিলাখানা ১ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের কদমতলা এলাকায়। সেখানে প্রায় দুটি পোল্ট্রি ফার্ম সহ ৪০ বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে। ঘটনার খবর পেয়ে স্থানীয় বিধায়ক তথা উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ এলাকার পঞ্চায়েত সদস্য মোস্তাফিজুর রহমানকে ক্ষতিগ্রস্তদের বাড়িতে গিয়ে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জেনে রিপোর্ট দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

চিলাখানা কদমতলা হাইমাদ্রাসা এলাকার বাসিন্দা হারুল রহমান জানান, গতকাল রাতের ঝড়ে তাঁর একটি পোল্ট্রি ফার্মের ঘর ভেঙে পড়ে। সেখানে ঘরের চাপে পড়ে প্রায় ২ হাজার পোল্ট্রি মুরগী মারা গিয়েছে। তাঁদের পরিবারে পাঁচ জন সদস্য। ওই ফার্ম দিয়েই তাঁদের সংসার চলত। কিন্তু এখন তাঁদের পুরোপুরি পথে বসার অবস্থা হয়েছে। অন্য এক বাসিন্দা হারুল রহমান বলেন, “বাড়িঘর ভেঙে অনেকেই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। সকলেই গরীব মানুষ। সরকারি সহায়তা না পেলে সবাই দুর্ভোগে পরবেন।”
এলাকার পঞ্চায়েত সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, “মন্ত্রীর নির্দেশে ঝরে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার গুলোর বাড়ি পরিদর্শনে গিয়েছিলাম।

এলাকার পরিস্থিতি সম্পর্কে একটা রিপোর্ট দিয়েছি। মন্ত্রী জানিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্তদের দ্রুত সহায়তা করার ব্যবস্থা করা হবে।”
গতকাল মধ্যরাতে কোচবিহার জেলার বেশ কিছু এলাকার উপর দিয়ে ঝড় বয়ে গেছে। এখনও পর্যন্ত অন্য কোন এলাকা থেকে তেমন ক্ষতির খবর না আসলেও তুফানগঞ্জ ১ নম্বর ব্লকের চিলাখানা ১ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার কদমতলায় ওই ঝড়ে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।