অদূর ভবিষ্যতে আরো নিম্নমুখী হবে জিডিপি, উদ্বেগ প্রকাশ করলেন প্রাক্তণ RBI গভর্নর রঘুরাম রাজন

দীর্ঘ ২৫ বছরের নিরিখে ২০২০-২১ অর্থবর্ষের প্রথম ত্রৈমাসিকে রেকর্ড হারে দেশে জিডিপির পতন হয়েছে। কেন্দ্রের প্রকাশিত তথ্য অনুসারে, চলতি বছরে জিডিপি সংকোচনের হার প্রায় ২৩.৯ শতাংশ। জিডিপির এই হারে পতন বিবেচনা রিজার্ভ ব্যাংকের প্রথম গভর্নর রঘুরাম রাজনের আশঙ্কা, ভবিষ্যতে পরিস্থিতি আরো খারাপ হতে পারে। জিডিপির এই পরিসংখ্যান দেশের জন্য যথেষ্ট “উদ্বেগজনক” বলে মত প্রকাশ করেছেন তিনি। সম্প্রতি রিজার্ভ ব্যাংকের প্রাক্তন গভর্নর একটি প্রতিবেদনে লিখেছেন, বিশ্বের অন্যান্য দেশ গুলি, যেখানে করোনা সংক্রমণের প্রভাব ভারতের থেকেও বেশি, তাদের তুলনায় ভারতের অর্থনৈতিক অবস্থা আরো খারাপ। উল্লেখ্য, সম্প্রতি দেশের অর্থনৈতিক দুর্দশা নিয়ন্ত্রণে কুড়ি লক্ষ কোটি টাকার একটি আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। এই প্যাকেজকে “রোগের টনিক” হিসেবে চিহ্নিত করে তার বক্তব্য,”রোগী (অর্থনীতি) যখন মরণাপন্ন, তখন কোনো টনিকই কাজ করে না।”

তার মতে, এখন অর্থনীতিকে বাঁচানোর দায়িত্ব সরকারকেই নিতে হবে। এই সময় এমনভাবে খরচ করতে হবে যাতে অর্থনীতিতে গতি আসে। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে এমন বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে, যাতে অর্থনীতিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়। তিনি আরো বলেছেন, এই পরিস্থিতিতে অর্থনীতি বাঁচাতে আরো একদফা আর্থিক প্যাকেজ চাইছেন অনেকেই। তবে এতে, ক্ষতি বৈ লাভ হবে না বলেই মনে করেন রঘুরাম রাজন।

তার বক্তব্য অনুসারে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি বিশ্বের মধ্যে সবথেকে মজবুত। তারাও করোনা পরিস্থিতিতে অর্থনীতি বাঁচাতে জিডিপির ২০ শতাংশ আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেছিল। কিন্তু তারপরেও আর্থিক বৃদ্ধি নিয়ে দুশ্চিন্তায় ভুগছে আমেরিকা। তবে, অনেক অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞের মতে, লকডাউনের জেরে শিল্পপ্রতিষ্ঠান গুলি বন্ধ থাকার দরুন জিডিপির সংকোচন হয়েছে। এরপর থেকে আর এমনটা হবে না। কিন্তু এই তত্ব মানতে নারাজ আরবিআই প্রাক্তন গভর্নর। তার মতে, ভবিষ্যতে পরিস্থিতি আরো খারাপের দিকেই এগোবে।