বৈদিক আচার নিয়মিত পালন করুন নিজ জীবনে, দিনটি কাটবে ভালো

যতক্ষণ ঘুম, ঠিক ততক্ষন ই আমরা শান্ত থাকি। ঘুম থেকে উঠার পর থেকেই আমাদের চিন্তা শুরু হয়ে যায়, সারাদিনে কি কি কাজ আমাদের করতে হবে। ঘুম থেকে উঠার পর জীবনে বেঁচে থাকার জন্য লড়াই শুরু হয়ে যায় আমাদের। তবে রাতে ঘুমের পর নতুন একটা জীবন দেখার জন্য কেউ ভগবান কে ধন্যবাদ জানাই না। বলা ভালো ভগবানকে ধন্যবাদ জানানোর কথা আমাদের তখনই মনে পড়ে যখন আমরা কোন বিপদ থেকে মুক্তি পাই। সকালের কিছু অভ্যাস যদি আমরা মানতে শুরু করি তাহলে, আমাদের জীবন ভবিষ্যৎ সুন্দর এবং স্বচ্ছল হতে পারে।

সূর্য উঠার আগেই ঘুম থেকে উঠে পড়তে হবে আমাদের। সকাল ছয়টার মধ্যে উঠে পড়তে পারলে আরো ভালো। সবার আগে নিজের শরীরের জনতা কাটিয়ে মাথা ঠান্ডা করুন। এর ফলে সারা দিনের কাজ করার শক্তি পাব আমরা। দিনের শুরুটা যেন জনকোলাহল মুক্তভাবে হয়। ঘুম থেকে উঠেই খাট থেকে নিচে নেমে পড়বেন না। আগে চোখ বন্ধ করে দীর্ঘনিঃস্বাস ফেলুন।ঘাড় থেকে গলা অবদি আস্তে আস্তে ঘোরান। হাতের তালু ঘষুন। দুচোখে হাতের তালুর তাপ দিন। এত শান্ত এবং স্নিগ্ধ ভাব অনুভব করবেন আপনি।

সকালবেলা ঘুম থেকে উঠে দুই গ্লাস জল পান করতে হবে। তামার পাত্রে জল পান করলে আরো ভালো। সকালবেলা জল বেশি খেলে হজম প্রক্রিয়া স্বাভাবিক থাকে। পরিষ্কার জামা কাপড় পরিধান করুন ব্রাশ করে। সাধারণ তাপমাত্রায় জল চোখে মুখে দিয়ে দিনটি শুরু করুন।

এরপরে এক চামচ নারকেল তেল খেয়ে ফেলুন। খারাপ লাগলেও নারকেল তেল দাঁতের মাড়ি শক্ত করে। এরপর কিছুক্ষন শরীরচর্চা করার চেষ্টা করুন। ওম মন্ত্র উচ্চারণ করুন। এতে আপনার শরীর ভেতর থেকে শান্ত হবে। মনের সমস্ত দরজা জানলা খুলে যাবে এই সময়ে। এই সমস্ত কিছু করলে আপনার শরীর এবং মনে পজিটিভ শক্তি আসবে, সাথে আপনি সুস্থ থাকবেন মানসিক এবং শারীরিক ভাবে।