আইন ভাঙলেই ৯ লক্ষ টাকার উপরে জরিমানা, ক’রোনা রুখতে নয়া নিয়ম ব্রিটেনে

শনিবার, ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন দেশবাসীর উদ্দেশ্যে কড়া বার্তা দিয়ে জানালেন, এবার থেকে দেশের যে সকল নাগরিক করোনা নিয়ম বিধি মেনে চলবেন না, তাদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেবে প্রশাসন। প্রধানমন্ত্রী জানিয়ে দিয়েছেন, এবার থেকে নিয়ম লঙ্ঘনকারী ব্যক্তি কে ১০ হাজার পাউন্ড বা ১১ হাজার ইউরো অব্দি জরিমানা করা হতে পারে। ভারতীয় মূল্য হিসেবে যা প্রায় সাড়ে নয় লক্ষ টাকার কাছাকাছি।

বিশ্বজুড়ে উত্তরোত্তর করোনা সংক্রমনের সংখ্যা বাড়ছে। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে,ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশে ইতিমধ্যেই সংক্রমনের দ্বিতীয় তরঙ্গ শুরু হয়ে গিয়েছে। এতে সংক্রমিত সংখ্যা বাড়বে। সংক্রমণের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার একমাত্র উপায় হল, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং মাস্ক ও স্যানিটাইজার ব্যবহার করা। ফলে এখন থেকেই দেশবাসীকে আরো সতর্ক হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী। ব্রিটেনের বাসিন্দাদের জন্য এসংক্রান্ত বেশ কয়েকটি নিয়ম নীতি ঘোষণা করেছেন বরিস জনসন।

প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী, ২৮শে সেপ্টেম্বরের পর থেকে কোনো ব্যক্তি যদি করোনা পজিটিভ রিপোর্ট পান, তাহলে অবিলম্বে তাকে জাতীয় স্বাস্থ্য পরিষেবার সঙ্গে যোগাযোগ করে নিজের আক্রান্ত হওয়ার খবর জানাতে হবে। পাশাপাশি ওই ব্যক্তিকে, কন্টাক্ট ট্রেসিং প্রোগ্রামেও অংশ নিতে হবে। ওই ব্যক্তির আইসোলেশন এ থাকা অত্যন্ত জরুরী বলে জানিয়ে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

এক্ষেত্রে নতুননিয়ম অনুযায়ী সংক্রামিত ব্যক্তিকে ১০ দিনের জন্য সেল্ফ আইসোলেশন এ থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি যারা সংক্রমিত ব্যক্তির সংস্পর্শে এসেছেন তাদেরকে ১৪ দিনের জন্য সেল্ফ আইসোলেশনে যেতে হবে। যারা সরকারের এই নির্দেশ মানবেন না তাদের মোটা অংকের টাকার জরিমানা করা হবে। উল্লেখ্য ব্রিটেনে ইতিমধ্যেই ৩ লক্ষ ৯০ হাজার মানুষ করোনা সংক্রমিত। ৪২ হাজার জনের মৃত্যু হয়েছে। অতএব, করোনা নিয়ে উদ্বিগ্ন ব্রিটেনের প্রশাসন।