কেনো পায়ে ছুঁয়ে প্রণাম করা হয়, আছে বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা, জেনে নিন

আমরা ছোটবেলা থেকেই দেখে এসেছি যে কখনো গায়ে পালিয়ে গেলে বড়দের পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করতে হয়। বিজয় দশমী অথবা যে কোন অনুষ্ঠানের দিন আমরা বড়দের পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করি।বড়দের পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করা শুধুমাত্র তাদের সম্মান দেখানোর জন্য নয়, এর পেছনে রয়েছে একটি বৈজ্ঞানিক কারণ। বিজ্ঞান অনুযায়ী, মাথাকে উত্তর মেরু এবং তাকে দক্ষিণ মেরু বলে মনে করা হয়। তাই যখন বড়দের পায়েছিল প্রণাম করা হয় তখন, এই ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক শক্তি চক্র সম্পন্ন হয়ে যায়। এর ফলে মাধ্যাকর্ষণের নিয়ম অনুযায়ী, যখন আমরা পায়ে হাত দেবার জন্য শরীরকে ঝুঁকিয়ে রাখি, তখন শরীরের দক্ষিণ মেরুর দিকে একটি এনার্জীর কেন্দ্র তৈরি হয়।

এই প্রণাম করা থেকে আমাদের শরীরে নতুন এনার্জি তৈরি হয়। তাই সব সময় বলা হয় যে, বড়দের পা ছুয়ে প্রণাম করতে হয়। বারবার আমরা যদি শরীরকে নত করে বড়দের পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করি তাহলে আমাদের শরীরে একটি পজিটিভ এনার্জি তৈরি হতে পারে। আবার মনোবিদদের মত অনুযায়ী, যখন আমরা পা ছুঁয়ে প্রণাম করি তখন বড়দের প্রতি শ্রদ্ধা অথবা ভালোবাসা জানানো হয়।

এর থেকে আমাদের শিক্ষার পরিচয় পাওয়া যায়। বিনম্রভাবের উদ্রেক হয় আমাদের মধ্যে। প্রণাম করার সময় বড়রা ছোটদের মাথায় হাত রেখে আশীর্বাদ করে যা নিরাপত্তা অনুভূতি জাগিয়ে তোলে আমাদের সকলের মধ্যে।বড়দের আশীর্বাদ আমাদের চলার পথে শক্তি প্রদান করে।

আবার এই প্রক্রিয়ায় আমাদের মধ্যে পজিটিভ এনার্জি ও বৃদ্ধি পায় যা আয়ু বৃদ্ধির কারণ হিসেবে মনে করা হয়। বারবার নীচু হওয়া এবং সোজা হয়ে দাঁড়ানোর ফলে আমাদের একটি ব্যায়াম হয়ে যায়। রক্ত চলাচল আরো সক্রিয় হয়ে ওঠে।তবে সমগ্র বিষয়টি ধর্মীয় মনে করা হলেও এর পেছনে বেশিরভাগ রয়েছে বৈজ্ঞানিক কারণ।