আগামী সপ্তাহেই ভারতের তৈরি কোভিশিল্ডের চূড়ান্ত ট্রায়াল, সবুজ সংকেত দিল DCGI

সম্প্রতি ভারতের সর্ববৃহৎ ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা সেরাম ইনস্টিটিউটের তরফ থেকে জানানো হলো, আগামী সপ্তাহ থেকেই ভারতে করোনাভাইরাস প্রতিরোধী ভ্যাকসিন “কোভিশিল্ড” এর চূড়ান্ত পর্যায়ের ট্রায়ালের শুরু হতে চলেছে। সম্প্রতি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রোজেনেকার তরফ থেকে আবিষ্কৃত এই ভ্যাকসিনের চূড়ান্ত পর্যায়ের ট্রায়াল সম্পন্ন করার জন্য সেরাম ইনস্টিটিউটকে অনুমোদন দিয়েছে ড্রাগস কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়া।

সেরাম ইনস্টিটিউটের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, আগামী সপ্তাহ থেকে পুনের সাসুন জেনারেল হাসপাতালে কোভিশিল্ডের চূড়ান্ত পর্যায়ের ট্রায়ালের শুরু হবে। বিশিষ্ট সংবাদমাধ্যম পিটিআইয়ে সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় সাসুন জেনারেল হাসপাতালের ডিন ডাঃ মুরলীধর তাম্বে জানালেন, চূড়ান্ত পর্যায়ের ট্রায়ালের অংশ নেবেন দেশের ১৫০ থেকে ২০০ জন স্বেচ্ছাসেবী। এদের প্রত্যেকের শরীরে নিয়ন্ত্রিত মাত্রায় ভ্যাকসিনের ডোজ দেওয়া হবে।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সূত্রে খবর, চূড়ান্ত পর্যায়ের ট্রায়ালের অংশ নিতে ইচ্ছুক বহু স্বেচ্ছাসেবী। গত শনিবার থেকে চিত্রশিল্পীদের নাম এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় তথ্য নথিভুক্তকরণ কাজ শুরু করা হয়েছে। উল্লেখ্য, ভারতের ড্রাগ কন্ট্রোল বোর্ডের অনুমতি পেয়ে গত ৩ রা আগস্ট কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় এবং তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালের শুরু করে সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া। এরপর সেরামের পক্ষ থেকে গত ২৫শে আগস্ট থেকে দ্বিতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল শুরু করা হয়।

এরপর, ৬ইসেপ্টেম্বর স্বেচ্ছাসেবীর শরীরে ভ্যাকসিন প্রয়োগের ফলে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দেওয়ায় ট্রায়াল’ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয় ব্রিটেন। পাশাপাশি, ৮ই সেপ্টেম্বর অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রোজেনেকার তরফ থেকে জানানো হয়, ট্রায়াল’ চলাকালীন অসুস্থ হয়ে পড়েছেন এক স্বেচ্ছাসেবী। ফলে সেরা মিশরীয় তরফ থেকেও ট্রায়াল’ প্রক্রিয়া কিছুদিনের জন্য স্থগিত রাখা হয়। অবশেষে, ১৫ইসেপ্টেম্বর ড্রাগ কন্ট্রোল বোর্ডের অনুমোদন পেয়ে আবারো ভ্যাকসিনের ট্রায়াল’ শুরু করতে চলেছে সেরাম ইনস্টিটিউট।