বেঁচে থাকুক এমন ভালোবাসা, স্ত্রীর ইচ্ছে পূরণ করতে নিজের জমি বেঁচে হাতি কিনে আনলেন কৃষক

দুজনের সংসার। নিজেদের মধ্যে সবকিছু বেশ মোটামুটি চলছিল। মাঝে মাঝেই স্ত্রী স্বামীর থেকে কিছু না কিছু আবদার করে থাকেন। কিন্তু হঠাৎ করে স্ত্রী স্বামীকে যে হাতি কিনে দেবার জন্য বায়না করবেন তা কি কখনো ভেবে দেখেছেন স্বামী?শ্রী শখ মেটানোর জন্য স্বামী এতটাই আগ্রহী যে নিজের জমি বিক্রি করে স্ত্রীকে একটি হাতি উপহার দিলেন। বাড়ি থেকে ৪০০ কিলোমিটার দূরে সিলেটের মৌলভীবাজার থেকে হাতে কিনে নিয়ে এলেন প্রিয়তমার জন্য।আশ্চর্য এবং একইসঙ্গে অভিনব এই ঘটনাটি ঘটেছে লালমনিরহাট সদর উপজেলার পঞ্চগ্রাম ইউনিয়নের রথিধর দেউতি গ্রামে।

দুলাল চন্দ্র রায় শ্রী তুলসী রানী দাসী দৈব নির্দেশ পালনের। তারপর থেকেই স্বামীর কাছে বায়না শুরু করেন হাতে কিনে দেবার। স্ত্রীর কাছে কিছু সময় চেয়ে নেন স্বামী দুলাল চন্দ্র।এরপর শ্রী কে খুশি করার জন্য সাড়ে ১৬ লক্ষ টাকায় সিলেটের মৌলভীবাজার থেকে এনে দিলেন একটি হাতি। এ খবর ছড়িয়ে পড়তেই আশেপাশের গ্রাম থেকে মানুষ জড়ো হয় দম্পতির বাড়িতে সেই হাসিটিকে দেখার জন্য। কেউ কেউ পাশের লাইন লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে হাতি দর্শন করছেন, কেউ আবার হাতির সঙ্গে সেলফি তুলছেন। স্থানীয় সূত্র থেকে জানা গিয়েছে যে, পেশায় কৃষক দুলাল বাবু শ্রী তুলসী রানী প্রাণী সংরক্ষণ করার জন্য একটি দৈব নির্দেশ পান। এই দৈব নির্দেশ পালন করার জন্য বেশ কয়েক বছর আগে স্বামীর কাছে আবদার করে একটি ঘোড়া রাজহাঁস এবং ছাগল কিনে আনেন তার স্ত্রী। এরপর হঠাৎ করে স্বামী দুলালের কাছে হাতে কিনে দেবার জন্য বায়না ধরেন।

প্রথমে বিষয়টি নিয়ে চিন্তিত থাকলেও পরে স্ত্রীকে খুশি করার জন্য নিজের ১১ বিঘা জমির মধ্যে দুই বিঘা জমি বিক্রি করে দেন দুলাল। সঙ্গে হাতি কে দেখাশোনা করার জন্য ইব্রাহিম মিয়া নামে একজন মাহুত কে রাখেন। প্রতি মাসে তাকে ১৫ হাজার টাকা বেতন দেওয়া হয়। এই প্রসঙ্গে গ্রামের একজন বাসিন্দা জানান যে, স্ত্রীকে খুশি রাখার জন্য দুলাল চন্দ্র বাবু সবকিছু করতে পারেন।শেষমেষ জমি বিক্রি করে হাতি কিনে আনার ঘটনাতে অবাক হয়েছেন গ্রামবাসীরা।

এই প্রসঙ্গে দুলাল বাবু শ্রী তুলসী রানী জানান যে, প্রায় এক মাস আগে স্বপ্নে মহাদেব এবং বিশ্বকর্মা তাকে নির্দেশ দিয়েছেন যে একটি হাতি ক্রয় করে তাকে যত্ন নিতে। সেই আদেশ পাওয়া মাত্র স্বামীর কাছে একটি হাতে কিনে দেবার জন্য বায়না করেন তিনি। দেবতা যতদিন তার বাড়িতে রাখতে বলবেন ততদিন এই হাতি তার বাড়িতে থাকবে। অন্যদিকে দুলাল চন্দ্র বাবু জানান যে, শ্রী স্বপ্নে হাতি ক্রয় করার নির্দেশ পেয়েছে। স্ত্রীকে খুশি করার জন্য আমি তাকে হাতি কিনে দিই। স্ত্রীর খুশিতেই আমার খুশি।