এক্সেলের বিয়ারিং ভাঙা, ফালাকাটায় বড়ো বিপদের হাত থেকে রক্ষা পেলো উত্তরবঙ্গ এক্সপ্রেস

রেল কর্মীদের তৎপরতায় বেশ বড়সড় দুর্ঘটনা এড়ানো সম্ভব হলো। সোমবার বিকেলে রেল কর্মীদের নজরে আসে উত্তরবঙ্গ এক্সপ্রেসের যাত্রীবাহী একটি বগি থেকে ধোঁয়া বেরোচ্ছে। বিষয়টি নজরে আসতেই তারা দ্রুত স্টেশন মাস্টারকে খবর দেন। এরপর পরীক্ষা করে দেখা যায় ওই চলন্ত ট্রেনের চাকার এক্সেলের বিয়ারিং ভাঙ্গা রয়েছে। সঠিক সময়ে রেল কর্মীদের নজরে বিষয়টি আসার দরুন বেশ বড়সড় দুর্ঘটনা এড়ানো সম্ভব হয়েছে।

প্রসঙ্গত এদিন বিকেলে কোচবিহারের বামনহাট থেকে শিয়ালদার দিকে এগোচ্ছিল ট্রেনটি। তবে ফালাকাটা স্টেশনে ঢোকার প্রায় দু’কিলোমিটার আগেই ফালাকাটা ষ্টেশনের ৪৫ নম্বর গেটের দায়িত্বে থাকা রেল কর্মীদের নজরে আসে বিষয়টি। বিষয়টি কর্তৃপক্ষের নজরে আসতেই বগিটি দ্রুত পরীক্ষা করে দেখা যায় ওই বগির চাকার এক্সেলের বিয়ারিংটি ভাঙ্গা রয়েছে।

এরপর বগিটিকে ট্রেন থেকে বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়। সব মিলিয়ে ট্রেনটি প্রায় চার ঘণ্টা ফালাকাটা স্টেশনেই আটকে থাকে। এরফলে যাত্রীদের মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার হয়। যাত্রীরা উত্তেজিত হয়ে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। বিষয়টি আগে থেকেই কেন নজরে আনা হলো না, ট্রেন চালু হওয়ার পূর্বেই কেন বিষয়টি কর্তৃপক্ষের নজরে এলো না, সেই প্রশ্ন তুলে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন তারা।

এ প্রসঙ্গে ফালাকাটা স্টেশনের এএসএম গোপাল দাসের মন্তব্য, সমস্যা চিহ্নিত করে ওই বগিটিকেট্রেন থেকে বিচ্ছিন্ন করার প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হতে প্রায় চার ঘণ্টা দেরি হয়ে যায়। চার ঘন্টা পরে পুনরায় ট্রেন চলাচল শুরু হয়। তাই যাত্রীরা বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। তবে এতে রেল কর্তৃপক্ষের কিছু করনীয় ছিল না বলেই জানাচ্ছেন তিনি।