১৩ ব’ছ’র প’র বোধোদয়! বাংলায় Tata-কে স্বা’গ’ত জানালেন শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়

পশ্চিমবঙ্গের শিল্পে বিনিয়োগের অভাব নিয়ে বারংবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিঁধে এসেছেন বিরোধীরা। তবে তৃতীয় বার ক্ষমতায় আসার পর রাজ্যে এবার শিল্পের অগ্রগতির উপর জোর দিতে চলেছে রাজ্য। যে কারণে টাটা গোষ্ঠীকে রাজ্য বিনিয়োগের উদ্দেশ্যে আমন্ত্রণ জানালেন রাজ্যের নতুন শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি সাফ জানিয়ে দিলেন এই রাজ্যে টাটা গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে তৃণমূলের কোনদিনই কোন বিরোধ ছিল না।

পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, পশ্চিমবঙ্গে টাটার শিল্পে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে টাটা গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে তৃণমূল সরকারের কোনো অভিযোগ ছিল না। তৃণমূলের অভিযোগ ছিল বামেদের জোর করে জমি অধিগ্রহণ নীতির বিরুদ্ধে। তাই দীর্ঘ প্রায় ১৩ বছর আগে সিঙ্গুরের টাটাগোষ্ঠীর ন্যানো কারখানা গড়ে তোলার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছিল তৃণমূল। যে প্রতিবাদ আন্দোলনের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তবে এবার রাজ্যে টাটা গোষ্ঠীর বিনিয়োগ চাইছে তৃণমূল সরকার। উল্লেখ্য পশ্চিমবঙ্গে বিরোধিতার সম্মুখীন হয় টাটাগোষ্ঠী বাংলা ছেড়ে দিয়ে গুজরাটে বেশ বড়সড় ব্যবসা ফেঁদে বসেছে। এবার পশ্চিমবঙ্গেও টাটা বিনিয়োগ করুক, পশ্চিমবঙ্গে নতুন শিল্প গড়ে উঠুক, এমনটাই চাইছে মমতা সরকার। বিশেষত শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কথা থেকে আকার-ইঙ্গিতে তেমনটাই আভাস পাচ্ছে রাজনৈতিক মহল।

রাজ্যে শিল্পের অভাব নিয়ে বিভিন্ন স্তরে সমালোচিত হতে হয় মমতা সরকারকে। যার পরিপ্রেক্ষিতে মমতা সরকার অবশ্য দাবি করে যে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে শিল্প গড়ে উঠেছে। এরই মধ্যে আবার পার্থ চট্টোপাধ্যায় রতন টাটা গোষ্ঠীকে বাংলায় স্বাগত জানালেন। তার এমন মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে ভবিষ্যতে টাটা গোষ্ঠী বাংলায় বিনিয়োগ করতে আগ্রহ দেখায় কিনা, জানার জন্য উদগ্রীব রাজনৈতিক মহল।