তরুণ প্রজন্মের উপর জোর, বয়স আশি হলেই বাদ! প্রার্থী তালিকা প্রস্তুত তৃণমূলের

একুশের নির্বাচনী দামামা বেজে গিয়েছে। আগামী ২৭শে মার্চ থেকে শুরু হয়েছে বাংলার ভাগ্যগণনার পালা। আগামী ৩রা মার্চ রাজ্য শাসক দল তাদের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করতে চলেছে। তৃণমূলের অভ্যন্তর সূত্রে খবর, তৃণমূল শিবিরের প্রার্থী তালিকা একেবারে রেডি। কালীঘাটে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে দলের নির্বাচন কমিটির বৈঠকে চূড়ান্ত তালিকা বানিয়ে ফেলা হয়েছে।

আপাতত জানা যাচ্ছে, একুশের নির্বাচনে লড়াইয়ের সুযোগ বেশি রয়েছে তরুণদের। তুলনায় ৮০ বছরের ঊর্ধ্বে যাদের বয়স সেই তৃণমূলীয় নেতা কর্মীরা এই সুযোগ থেকে বঞ্চিত হতে পারেন। এদের মধ্যে রয়েছেন হাওড়ার শিবপুরের প্রবীণ বিধায়ক জটু লাহিড়ি, সিঙ্গুরের বিধায়ক মাস্টারমশাই বলে খ্যাত রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য, আব্দুর রেজ্জাক মোল্লার মতো তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতারা।

সোমবার কালীঘাটের বৈঠকের পর রাজ্যের মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, দলের প্রবীণ নেতা কর্মীদের শারীরিক অবস্থা বিবেচনা করে এমন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। প্রবীণ সদস্যরা শারীরিক কারণে সক্রিয় থাকতে পারেন না। এতে সাধারণ মানুষও পরিষেবা থেকে ব্যাহত হন। তবে এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেই।

এ দিনের বৈঠকে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়াও বৈঠকে দলের বহু হেভিওয়েট নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। এই দিনের বৈঠকে গৃহীত সিদ্ধান্ত অনুসারে বহু নেতাকর্মী এবং বিধায়কের বিধানসভা কেন্দ্র বদলে যাওয়ার সম্ভাবনাও দেখা দিয়েছে।