“ঠেঙিয়ে পগারপারে”, রাজনীতির ময়দানে একুশের সেরা ডায়লগ, ফের হিট অনুব্রত

অনুব্রত মণ্ডল বীরভূমের বেতাজ বাদশা, তার মুখ দিয়ে আমরা অনেক ধরনের ডায়লগ শুনেছি আর যেটা খুব সহজেই আকর্ষণ কড়েছে মানুষকে। একের পর এক তারবার্তা এটা ভাইরাল হয়েছে নিমিষে। তার মুখ দিয়ে প্রথম বেরিয়েছিল গুড় বাতাসা নকুলদানা দেওয়ার কথা, এই সমস্ত চোখা চোখা ডায়লগ এর মধ্যে যেটা সবথেকে বেশি অন্যতম শুটিয়ে লাল করে দেওয়া। কিন্তু সামনেই একুশে বিধানসভা নির্বাচন আর সেই কারণেই তার সেই ডায়লগ এর সম্ভার থেকে বেরিয়ে এসেছে এক নতুন সংযোজন।

গতকাল শাসকদল তৃণমূলের ছিল ২৩ তম প্রতিষ্ঠা দিবস। আর সেই কারণেই বিভিন্ন জেলায় হয়েছে ছোট বড় অনুষ্ঠান মেলা। গতকাল শুক্রবার বীরভূমের নানুর এ মিলন মেলায় গিয়ে এক নতুন বার্তা দিলেন সবাইকে। একেবারে পুরানো ফর্মে দেখা গেল তাকে। মিলন মেলার অনুষ্ঠানে গিয়ে একেবারে ঠেঙিয়ে পগারপার করার কথা বললেনতিনি। তবে এই বার্তা যে কাদের উদ্দেশ্যে সেটা কারো বুঝতে বাকি নেই। অবশ্যই তৃণমূলের বিরোধী দল বিজেপির উদ্দেশ্যেই এই বার্তা। তবে একবারও তার মুখ দিয়ে বিজেপি নামটি বের হয়নি।

তিনি সেখানে দাঁড়িয়ে জানিয়েছেন, গ্রামের একটা কথা রয়েছে ঠেঙিয়ে পগারপার। আমি আপনাদের কাছে অনুরোধ করব ওদের ঠেঙিয়ে পগারপার করে দিন। এখানেই শেষ নয় এর পরেই তিনি আরো বলেছেন, অনেক হনু এ গাছ থেকে আরেক গাছে লাফিয়ে গেছেন। মঞ্চে দাঁড়িয়ে এই বার্তা যে তিনি সম্প্রতি দলত্যাগী শুভেন্দু অধিকারী কে বলেছেন সেটা কিন্তু স্পষ্ট। তিনি শুভেন্দু অধিকারীর নাম না করেই তাকে হনু বলে অভিহিত করেছেন।এ বলেছেন অনেকেই এ গাছ থেকে আরেক গাছে লাফিয়ে লাফিয়ে যাচ্ছে কিন্তু লাভের লাভ হবে না কিছুই একুশে বিধানসভা নির্বাচনে জয় হবে দিদিরই। গতকাল সেই মঞ্চেই অনুব্রত মণ্ডল কে ২ কেজি রুপার তৈরি মুকুট উপহার দেওয়া হয় মেলা কমিটির তরফ থেকে।