খিদেতে ছটফট করছে আট সন্তান, মন ভোলাতে পাথর রান্না করছে মা, কান্নায় ভেঙে পড়লো নেট দুনিয়া

যারা কেড়ে খায় তেত্রিশ কোটি মুখের গ্রাস, যেন লেখা হয় আমার রক্ত-লেখায় তাদের সর্বনাশ বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলামের এই কবিতার লাইন কিন্তু দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে একপ্রকার বিশেষ মিল দেখা দিয়েছে। যদিও তারা নয়, সে অর্থাত্ করোনা ভাইরাস। যার জেরে বিশ্বে নয়া ত্রাস তৈরি হয়েছে। লকডাউন চলছে তাই মানুষের আয় বন্ধ।

জরুরী পরিষেবা ছাড়া সমস্ত কিছুই বন্ধ। বিশেষ করে দিন আনি দিন খাই দের রোজগার। যাদের একদিনের একবেলা অন্ন মুখে তুলতে গেলে গায়ে গতরে খাটা ছাড়া কোনো উপায় নেই। সরকারি সাহায়্য পেলেও তা আর কতদিন? পেটের জ্বালা বড় জ্বালা। তাই খিদের জ্বালায় কোনো কিছুই যে বাধ মানেনা।

কথাতেই আছে মা তার সন্তানদের বড় করতে কি না করেন। তাই এই পরিস্থিতিতে যখন রোজগারের অভাবে ঘরে খাবার নেই ঠিক তখনই আবারও মমতাময়ী মায়ের এক বেঁচে থাকার অদম্য লড়াই এল প্রকাশ্যে। আট সন্তান কাঁদছে খিদের জ্বালায়। তাই তো তাঁদের খিদে মেটাতে পাথর রান্না করলেন মা। এমনই ঘটনা ঘটেছে আফ্রিকার মোম্বাসার একটি গ্রামে। করোনার থাবা যেখানে পড়েছে ভালোভাবেই।

মোম্বাসার বাসিন্দা ওই মহিলার নাম পেনিনা। বেশ কয়েকবছর হল তাঁর স্বামী প্রয়াত হয়েছেন। তাই আট সন্তান নিয়ে কোনোক্রমে দিন গুজরান করেন তিনি। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে তিনি খুবই অসহায়। তাই খাবার তুলে দিতে পারছেন না সন্তানদের মুখে। কিন্তু সন্তানদের পেট মানছে না। তাই তো সন্তানদের কাঁদনা থামানোর জন্য রান্নার অভিনয় করলেন। অথচ রান্নার জায়গায় রয়েছে পাথর। পেনিনার এক প্রতিবেশি এই বিষয়টি সংবাদমাধ্যমকে জানান। তারপরেই ঘটনা প্রকাশ্যে আসে। তবে খবর প্রকাশ্যে আসতেই অনেকে তাঁকে সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন।

সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন