ব্যাপক ক্ষতির মুখে অর্থনীতি, চলতি আর্থিক বছরে নেমে আসবে বিপর্যয়, জিডিপি শুন্য হতে পারে দেশ !

দেশের আর্থিক বেহাল দশা চলছে গত বছর থেকেই। জিডিপি বৃদ্ধির হার একেবারে তলানিতে নেমে গেছে। গত বছরের নবেম্বর –ডিসেম্বর মাস নাগাদ দেশের আর্থিক বৃদ্ধির হার এতটাই কমে গিয়েছিল যে তা নিয়ে ইন্টার ন্যাশানাল মনিটরি ফান্ডও সংশয় প্রকাশ করেছিল।তারপর এবার চলতি বছরের শুরু থেকে যেভাবে করোনা ভাইরাস নিয়ে বিশ্বজুড়ে উত্তজনা তৈরি হয়েছে তাতে দুমাস ধরে দেশের সমস্ত বিদেশি বিনিয়োগ বন্ধ রয়েছে। তারসঙ্গে বন্ধ রয়েছে সবকিছুই।

এককথায় দেশের আয়ের উত্স সমস্তটাই বন্ধ। লাফিয়ে লাফিয়ে যেভাবে করোনায় মৃতের সংখ্যা বাড়ছে তাতে কেন্দ্রীয় সরকার দেড় মাসের বেশি সময় ধরে লকডাউন বজায় রেখেছে দেশজুড়। আর এই পরিস্থিতিতে মোডিস-এর তথ্য প্রকাশ্যে আসল। যা নিয়ে দেশজুড়ে ব্যাপক চাঞ্ল্য ছড়িয়েছে। করোনা ভাইরাসের জন্য চলতি বছরের মধ্যেই নাকি ভারত আর্থিক বৃদ্ধির হার শূন্য দেখতে পারে।

রেটিং এজেন্সি Moody’s এর তরফে জানানো হয়েছে আগামী এক বছর ভারত কোনো আর্থিক বৃদ্ধির চিত্র দেখতেই পাবে না। দুই বছর পরে দেশে সুদিন আসবে। অর্থাত্ ২০২২ সালে, যখন দেশে জিডিপি বৃদ্ধির হার দাঁড়াতে পারে ৬.৬ শতাংশে।
প্রসঙ্গত, ভারত সরকার করোনা মোকাবিলার জন্য ২২.৫৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার স্টিমিউলাস প্ল্যান চালু করেছে, সেখানে মাঝারি ব্যবসায়ীদের সাহায়্য থেকে শুরু করে দেশের গরীবদের ত্রান দেওয়া হচ্ছে। একদিকে যখন দেশের আয় বন্ধ তখনই কেন্দ্রীয় সরাকরে এই দুই সিদ্ধান্ত ভারডুবির কারণ হতে পারে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে সংস্থাটি।