ধৈর্য্যের পরীক্ষা নেবেন না, চীনকে হুঁশিয়ারি সেনা প্রধানের

একদিকে চীন, একদিকে পাকিস্তান; দুই সীমান্ত শত্রুর মুখোমুখি ভারত। চীনা ড্রাগনের দল একদিকে ভারতীয় ভূখণ্ড দখলের প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। অন্যদিকে পাকিস্তানের জঙ্গি বাহিনী ভারতে অনুপ্রবেশ চালিয়ে ভারতে সন্ত্রাস ছড়ানোর চেষ্টা চালাচ্ছে। তবে ভারতীয় সেনাবাহিনী অবশ্য উভয় শত্রুর মোকাবিলা করতে প্রস্তুত। সেনা দিবস উপলক্ষে ভারতীয় সেনাপ্রধান মনোজ মুকুন্দ নারাভানে এমনভাবেই শত্রুপক্ষের প্রতি কড়া বার্তা দিয়ে রাখলেন।

ভারতীয় সেনা প্রধানের মন্তব্য অনুসারে, ভারত বরাবরই কূটনৈতিক আলোচনার মাধ্যমে সীমান্ত সমস্যার মোকাবিলা করতে চায়। কিন্তু সেই জন্য ভারতকে দুর্বল মনে করে ভারতের ধৈর্যের পরীক্ষা নিলে কিন্তু ভুল হবে! আর্মি দিবসের প্যারেডে অংশগ্রহণ করে এমনই কড়া প্রতিক্রিয়া কড়া প্রতিক্রিয়া দিলেন তিনি। পাশাপাশি গালওয়ান সীমান্তে ভারতীয় ভূখণ্ড রক্ষা করতে গিয়ে শহীদ ভারতীয় সেনাদের আত্ম বলিদানও বৃথা যাবে না বলেই আশ্বস্ত করেছেন ভারতীয় সেনাপ্রধান।

এদিন তিনি বলেছেন, আলোচনার মাধ্যমে সমস্ত সমস্যার সমাধান করে নিতে প্রস্তুত ভারত। আলোচনার প্রয়াস চালাতে ভারত কোনো কার্পণ্য করবে না। তবে দেশের সুরক্ষা এবং সার্বভৌমত্ব রক্ষার সঙ্গে ভারত কোনো আপস করবে না। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত বছরের ১৫ই জুন লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে ভারতীয় ভূখণ্ডে অনুপ্রবেশের চেষ্টা চালিয়েছিল চীন। তাদের প্রতিহত করতে গিয়ে ভারতের ২০জন সেনা জওয়ান ঘটনাস্থলে শহীদ হন।

এদিকে আবার পাকিস্তানি জঙ্গিরাও ক্রমাগত ভারতে অনুপ্রবেশ করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এ প্রসঙ্গে নারাভানের মন্তব্য, পাকিস্তান এখনো জঙ্গিদের কাছে স্বর্গ রাজ্য! ভারত-পাকিস্তান প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখার ওপারে অন্তত ৩০০-৪০০ জন প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত পাকিস্তানি জঙ্গি ভারতে আক্রমণ চালাতে প্রস্তুত বলেই জানিয়েছেন তিনি। তবে ভারত শত্রুর সকল ষড়যন্ত্র প্রতিহত করতে প্রস্তুত, এমনটাই জানিয়েছেন ভারতীয় সেনাপ্রধান।