বাড়ির ঠাকুর ঘরে এই ১০টি ভুল ভুলেও করবেন না, জীবনে আসতে পারে মহা বিপদ!

প্রত্যেক সনাতন হিন্দু ধর্মালম্বী মানুষদের বাড়িতে একটি করে মন্দির থাকে। ঘরের মধ্যে একটি মন্দির থাকা মানে ঘরে সুখ এবং শান্তি বজায় থাকে। এর ফলে বাড়ির লোকেদের মধ্যে ঈশ্বরের প্রতি ভালোবাসা এবং বিশ্বাস বজায় থাকে। তবে তাই সেই দেখা যায় যে ঠাকুর ঘর তৈরি অথবা সাজানোর সময় আমরা কিছু ভুল করে থাকি। এইরকম ভুল করার ফলে উপাসনা সফল হয় না, উল্টে ঈশ্বর রাগান্বিত হয়ে যান।

আমাদের ভুল এর ফলে আমাদের সৌভাগ্য দুর্ভাগ্যে পরিণত হয়ে যায়। আসুন জেনে নিন,ঘরে মন্দির তৈরি করার সময় আমাদের যে দশটি জিনিস মনে রাখা উচিত। বাস্তুশাস্ত্র মতে, বাড়ির মন্দিরটি সর্বদা অথবা উত্তর দিকে করা উচিত। ভাই ঠাকুর ঘরে কখনোই একাধিক প্রতিমা অথবা ছবি রাখবেন না। কখনো একই প্রতিচ্ছবি থাকলে সেগুলো মুখোমুখি রাখবেন না।ঘরে কখন নির্মিত ঠাকুর অথবা ঈশ্বরের পায়ের দিকে ঘুমাবেন না। ঘরে তৈরি ঠাকুরের সামনে অথবা পাশে শৌচাগার তৈরি করবেন না। পূর্বপুরুষ অনুসারে কোন ঠাকুর ঘরে রাখা উচিত নয়।

বাড়ির ঠাকুর ঘরে কখনো কখনো ঈশ্বরের ছবি অথবা ঈশ্বরের মূর্তি নিজের আকারে স্থাপন করা উচিত নয়। বাড়ি র ঠাকুরঘরে প্রতিদিন প্রার্থনা করা উচিত। কখনো ভুলেও দিনের বেলা মন্দির বন্ধ করা উচিত নয়। ঠাকুর ঘরে পূজা দেবার সময় অথবা আরাধনা করার সময় ঈশ্বরকে অবশ্যই ভোগ দিতে হবে। ঠাকুর ঘরে পুজো করার সময় ধুপ, ধুনা জ্বালানো উচিত। ঠাকুর ঘরে যে দেবতার পুজো হয়, সেই দেবতার মূর্তির ছবি ভাঙ্গা বা ছেরা রাখা উচিত নয়।