চলছে WORK FROM HOME, এই সহজ পদ্ধতিতে সঞ্চয় বাড়িয়ে আপনিও হতে পারেন মোটা টাকার মালিক

work-from-home, এই কথাটি গত বছর বোধহয় আমরা অনেকেই জানতাম না। কিন্তু মহামারীর জেরে এখন প্রতিদিনের কথা হয়ে দাঁড়িয়েছে work-from-home। লক্ষ লক্ষ চাকুরীজীবী এখন বাড়িতে বসে কাজ করছেন সেই মার্চ মাস থেকে। এই চার পাঁচ মাসে বাড়িতে বসে কাজ করার ফলে বেশকিছু আলাদা সুবিধা হয়েছে মানুষের।বাড়িতে বসে কাজ করার সুবিধা একটাই বাইরে বেরিয়ে কাজ করার ফলে যে টাকা খরচা হত সেটি এখন সঞ্চয় করা যায়।যেমন গাড়ি ভাড়া, বাইরে খাবার খরচ, বাইরে থাকা বা কোথাও যাওয়ার খরচ, বাইকে তেল এর খরচ, সবকিছু মিলিয়ে বেশ মোটা অংকের টাকা জমাতে পারছেন চাকুরীজীবীরা।কিন্তু এই অর্থ যদি সঠিকভাবে আপনি জমাতে পারেন তাহলে আপনি অদূর ভবিষ্যতে কোটিপতি হয়ে যেতে পারেন। হাস্যকর মনে হলেও এটা কিন্তু একেবারেই সত্যি।

মনে করুন আপনি একজন চাকুরীজীবি হিসাবে মাস গেলে বেতন পান ৬০ হাজার টাকা। সেখান থেকে প্রতিমাসে আপনি এখন ১০,০০০ টাকা জমাতে পারছেন। এই ১০ হাজার টাকা দিয়ে যদি আপনি এসআইপি চালু করতে পারেন, তাহলে মাত্র দশ মাস এই আপনি জমাতে পারবেন এক লক্ষ টাকা। ১৫ মাসের জন্য যদি আপনি ১০,০০০টাকা জমানো তাহলে প্রতি বছর দুই হাজার টাকা করে জমালে ১৫ বছর পর আপনার কাছে চলে আসবে এক কোটি টাকা।

এরপর ১৫ বছর পর ডিপোজিট এর অর্থের পরিমাণ হবে ৪৪.২ লক্ষ টাকা। যদি রিটার্ন যদি ১২% হয়, তাহলে আপনি ১৫ বছর পরে রিটার্ন পাবেন ৫৬,৩৭ লক্ষ টাকা। আর যদি অবসর এর দিকে তাকিয়ে সঞ্চয় করেন,তাহলে ন্যাশনাল পেনশন স্কিম এর মত ভাল বিনিয়োগ আর নেই। যদি আপনার বয়স ৩৫ বছর হয় আর আপনার হাতে যদি থাকে এক লক্ষ টাকা। তাহলে প্রতি মাসে ৫০০০ টাকা করে জমানো লাভজনক হতে পারে আপনার জন্য। ৬০ বছর বয়সে এই অর্থ বাড়তে বাড়তে আপনার কাছে আসবে ৩.৬৫ কোটি টাকা।

সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন