এতো ভয় ক’রো’নার! গত ৩ মাস বিমানবন্দরেই লুকিয়ে ছিলেন এই ব্যক্তি

২০০৪ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত হলিউড সিনেমা “দ্য টার্মিনাল” এর যে কথা নিশ্চয়ই মনে আছে। সিনেমার প্রধান চরিত্রটিকে বেশ কয়েক মাস ধরে জেএফ বিমান বন্দরে লুকিয়ে বাস করতে দেখা গিয়েছিল ওই সিনেমাটিতে। কারণ, তাকে শহরের মধ্যে অস্থায়ীভাবে বাস করার অনুমতি প্রদান করা হয়নি। আবার দেশে ফিরে যাওয়ার অনুমতিও প্রদান করা হয়নি। ছবির নির্মাতার দাবি ছিল, একেবারে বাস্তব ঘটনা অবলম্বনে এই ছবিটি বানানো হয়েছে। সম্প্রতি বাস্তবে আবারও সে রকমই একটি ঘটনার কথা প্রকাশ্যে এলো।

লস অ্যাঞ্জেলসের ও’হার বিমানবন্দরে বিগত তিন মাসেরও বেশি সময় ধরে লুকিয়ে রইলেন এক ব্যক্তি। ক্যালিফোর্নিয়ার বাসিন্দা আদিত্য সিং, ৩৬ বছর বয়সী ওই যুবক গত বছরের ১৯শে অক্টোবর ক্যালিফোর্নিয়া থেকে লস অ্যাঞ্জেলসে আসেন। এরপর অবশ্য তার ফিরে যাওয়ার কথা ছিল। তবে করোনার জন্য তিনি প্লেনে উঠতে সাহস পাননি। তাই বিগত তিনমাস ধরে ও’হার বিমানবন্দরেই লুকিয়ে ছিলেন ওই ব্যক্তি।

ও’হার বিমানবন্দরের টার্মিনাল ৩ এর এক আধিকারিকের একটি ব্যাজ ভাগ্যক্রমে পেয়ে গিয়েছিলেন তিনি। সেই ব্যাজ দেখিয়েই এতদিন কোনোক্রমে বিমানবন্দরের মধ্যে থাকার অনুমতি পেয়েছেন তিনি। তবে সম্প্রতি বিমানবন্দরের কর্মীদের কাছে তিনি ধরা পড়ে গিয়েছেন। গত ১৬ই জানুয়ারি বিমানবন্দরের কর্মীরা তাকে আটক করে। তাকে আইডিকার্ড দেখাতে বলা হলে তিনি তার কুড়িয়ে পাওয়া কার্ডটি দেখান।

এর পরেই সমস্ত ঘটনাটি প্রকাশ পেয়েছে। কারণ ওই ব্যাজটি আসলে ওই বিমান বন্দরে কর্মরত এক অপারেশন ম্যানেজারের। তিন মাস আগে সেটি খোয়া গিয়েছিল। আইডি কার্ড হারিয়ে যাওয়াতে তিনি বিমানবন্দরে একটি রিপোর্টও দাখিল করেছিলেন। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে আদিত্য সিংয়ের বিরুদ্ধে সংরক্ষিত এলাকায় অবৈধ প্রবেশের অভিযোগ আনা হয়েছে। এই অভিযোগের জন্য তাকে এক হাজার মার্কিন ডলার জরিমানা দিতে হবে।