বিজেপিকে ভয় পাবেন না, ঝগড়াটে মহিলাদের এজেন্ট করা হবে বুথে বুথে: মমতা ব্যানার্জি

বিজেপির ভয়ে ন্যাকা কান্না আর নয়! প্রয়োজনে পাড়ার ঝগড়াটু মহিলাদেরই বুথে বসানোর পরিকল্পনা নিয়ে একুশের লড়াইয়ের ময়দানে নামতে চায় তৃণমূল। আজ খানাকুলে তৃণমূলের তরফ থেকে আয়োজিত প্রচার সভায় অংশগ্রহণ করে এমনই যুদ্ধংদেহী মেজাজে বক্তৃতা রাখলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রসঙ্গত, খানাকুল ছাড়াও এদিন হাওড়া, হুগলি, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় একই দিনে পরপর পাঁচটি সভায় অংশগ্রহণ করেছেন তৃণমূল নেত্রী।

একুশের বিধানসভা ভোট নিয়ে রাজ্য রাজনীতি উত্তাল। বিশেষত দুই দফার ভোট পর্ব সম্পন্ন হওয়ার পর কেন্দ্রীয় বাহিনী এবং বিজেপির বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল। মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন, বাইরে থেকে গুন্ডাদের নিয়ে এসে ভয় দেখাচ্ছে বিজেপি। মারপিট করছে। এখন আর কোনও “ন্যাকা কান্না” সহ্য করবে না তৃণমূল।

মুখ্যমন্ত্রীর এদিন রীতিমতো যুদ্ধংদেহী মেজাজে বলেন, যার সাহস নেই, তিনি আগেই বলে দিন। প্রয়োজনে মহিলাদের বুথের এজেন্ট করা হবে। কন্যাশ্রী, ছাত্র-যুবদের দায়িত্ব দেওয়া হবে। কারণ তারা অনেক বেশি “স্ট্রং”। পাশাপাশি, কাজ ভালো হলে মহিলাদের পুরস্কৃত করার পরিকল্পনাও গ্রহণ করেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো।

বিজেপিকে নিয়ে বলতে গিয়ে এদিন তৃণমূল নেত্রী বলেন, ভোট কেন্দ্রের ভেতরে কারোর গায়ে হাত দেওয়ার ক্ষমতা নেই বিজেপির। অতএব বিজেপি ভয় দেখাচ্ছে, এমন টা বলবেন না। এ প্রসঙ্গে নির্বাচন কমিশনের সাম্প্রতিক নির্দেশিকার কথাও উল্লেখ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন, কমিশনের নির্দেশ অনুসারে কেন্দ্রীয় বাহিনীর সদস্যরা ভোটারদের আইডি কার্ড দেখতে পারবেন না। অতএব ভয়ের কোনও কারণ নেই।