‘পুজো বলে ক’রোনাকে কোনভাবেই অবহেলা করবেন না’, বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর

পুজোর প্রাক্কালে উত্তরবঙ্গ সফরে গিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সামনেই দুর্গা পুজো। বাঙালির সবথেকে বড় পার্বণ। করোনার আতঙ্কের মাঝেই বঙ্গবাসী মেতে উঠবে তাদের প্রিয় উৎসব দুর্গোৎসব নিয়ে। তবে, করোনার মাঝে উৎসব পালনের ক্ষেত্রে আরো বেশি সতর্ক হতে হবে মানুষকে। মঙ্গলবার, আলিপুরদুয়ার ও জলপাইগুড়ি জেলার প্রশাসনিক কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক চলাকালীন মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য, উৎসব উপলক্ষে করোনা যেন কোনোভাবেই অবহেলিত না হয়।

এ দিনের বৈঠকে বসেই রাজ্যবাসীর উদ্দেশ্যে পুনরায় সতর্কতার বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেছেন, “পুজো আসছে বলেই যেন করোনাকে অবহেলা করবেন না”। পাশাপাশি প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের তিনি রাজ্যের করোনা পরিস্থিতির উপর সম্পূর্ণ নজর রাখার নির্দেশও দিয়েছেন। এই দিনের বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী করোনা মোকাবিলায় রাজ্যের আশা কর্মী এবং স্বাস্থ্য কর্মীদের ভূমিকা প্রসঙ্গে তাদের ভূয়শী প্রশংসা করেন।

উল্লেখ্য, সারাদেশের মতো পশ্চিমবঙ্গেও দিন প্রতিদিন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। তবে সারা বঙ্গের তুলনায় উত্তরবঙ্গে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা অনেকটাই কম। এদিনের প্রশাসনিক বৈঠক এ রাজ্যের মুখ্যসচিব রাজীব সিনহাও জানিয়েছেন, উত্তরবঙ্গের করোনা পরিস্থিতি অনেকাংশেই রাজ্যের নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রয়েছে। সামনেই উৎসবের মরসুম শুরু হচ্ছে। করোনা আতঙ্ককে সঙ্গী করেই এবার উৎসব পালন করতে হবে।

মহামারীর মধ্যে সংক্রমণ এড়িয়ে উৎসব পালন করা রাজ্যের কাছে রীতিমতো চ্যালেঞ্জ স্বরূপ। তাই প্রশাসনিক বৈঠকের মঞ্চে বসে রাজ্যের প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের যেমন সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী, তেমনই রাজ্যবাসীর প্রতিও উপযুক্ত সর্তকতা অবলম্বন এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আবেদন জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। উল্লেখ্য, বর্তমানে রাজ্যে প্রতিদিন গড়ে প্রায় তিন হাজার মানুষ নতুন করে করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন।

রাজ্যে এ পর্যন্ত মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ২ লক্ষ ৫০ হাজার ৫৮০ জন। ভাইরাসের সংক্রমণে ইতিমধ্যেই ৪ হাজার ৮৩৭ জন প্রাণ হারিয়েছেন। তবে সংক্রমণের হারের পাশাপাশি অবশ্য রাজ্যে সুস্থতার হারও বেড়েছে। স্বাস্থ্য দপ্তরের রিপোর্ট অনুযায়ী রাজ্যে ইতিমধ্যে ২ লক্ষ ১৯ হাজার ৮৪৪ জন করোনাকে হারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন।