মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক প’রী’ক্ষা কি নেওয়া দরকার? Email-এ জনগণের মত জা’ন’তে চা’ই’লো সরকার

করোনার কারণে বারবার পিছিয়েছে মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা। সম্প্রতি জুন মাসে মাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়ার কথা ভেবেছিল রাজ্য সরকার। তবে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের জেরে লকডাউনের কারণে সেই পরীক্ষা পিছিয়ে যায়। আগামী দিনে জুলাই-আগস্ট মাসে পরীক্ষা নেওয়ার কথা ভেবেছে শিক্ষা দপ্তর। তবে করোনার কারণে এই মুহূর্তে মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা হওয়া উচিত কিনা, সেই সম্পর্কে দ্বিমত দেখা দিয়েছে।

বর্তমান পরিস্থিতিতে তাই উপযুক্ত কোনো সিদ্ধান্তে না আসতে পেরে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক সম্পর্কে মতামত দেওয়ার জন্য পড়ুয়া অভিভাবক এবং সাধারণ মানুষকে একটি ইমেইল আইডি সরবরাহ করা হয়েছে। এই ইমেইল মারফত রাজ্যবাসী তাদের মতামত জানাতে পারবেন। সোমবার দুপুর দুটোর মধ্যেই সিদ্ধান্ত জানানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য রাজ্য সরকারের তরফ থেকে একটি বিশেষ কমিটি নিয়োগ করা হয়েছে। সেই কমিটি কার্যত এখন তিনটি বিষয়ে গুরুত্ব দিয়ে ভাবছে। প্রথমত, এই করোনা পরিস্থিতিতে মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা হওয়া উচিত কিনা, দ্বিতীয়ত, পরীক্ষা হলেও কিভাবে পরীক্ষা নেওয়া হবে এবং তৃতীয়ত, পরীক্ষা না হলে মূল্যায়ন কিভাবে হবে।

এই প্রসঙ্গে সাধারণের মতামত নেওয়ার জন্য তিনটি ইমেইল এড্রেস দেওয়া হয়েছে। pbssm.spo@gmail.com , commissionerschooleducation@gmail.com এবং wbssed@gmail.com, এই তিনটি ইমেইল আইডি ব্যবহার করে আগামীকাল দুপুর দুটোর মধ্যেই নিজের নিজের মতামত জানাতে পারবেন।