দলের প্রতি অসন্তুষ্ট, প্রার্থীকে পছন্দ নয় অনুব্রতর

গত শুক্রবার তৃণমূলের তরফ থেকে আসন্ন একুশের বিধানসভা নির্বাচনের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। চলতি দফার নির্বাচনে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের বিভিন্ন বিধানসভা কেন্দ্রের পুরনো প্রার্থীদের সরিয়ে নতুন মুখ এনেছে রাজ্য শাসক দল। তৃণমূলের অনেক সম্ভাব্য সদস্যই প্রার্থী তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন। এর ফলে তৃণমূলের অভ্যন্তরেই শুরু হয়েছে মান-অভিমান, ক্ষোভ-অসন্তোষের পালা।

দলের সিদ্ধান্তের সঙ্গে সহমত নন বীরভূমে তৃণমূলের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। এবার প্রকাশ্যেই তিনি তার ক্ষোভ উগরে দিলেন। বিশেষত বীরভূম জেলার একটি আসনের প্রার্থী নিয়ে তিনি অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। তিনি পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন, বীরভূমের দশটি আসনে বিধানসভা নির্বাচনের দায়িত্ব তিনি নিতে পারেন। তবে দুবরাজপুরের আসনটি বাদে।

প্রসঙ্গত এই দুবরাজপুরেই প্রার্থী হিসেবে দাঁড়িয়েছেন খয়রাশোলের বাসিন্দা গৃহবধূ অসীমা ধীবর। দুবরাজপুর বিধানসভার বিধায়ক নরেশ চন্দ্র বাউড়ির বদলে অসীমা ধীবরকে প্রার্থী করা নিয়ে তৃণমূলের অভ্যন্তরে মতবিরোধ দেখা দিয়েছে। বিশেষত অনুব্রত মণ্ডলের পাঠানো প্রার্থী তালিকাকে এবার গুরুত্ব দেওয়া হয়নি।

এ বিষয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন নরেশ চন্দ্র বাউড়ি। এবার দলের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করলেন অনুব্রত মণ্ডলও। এদিকে নাম প্রকাশের পর দেওয়াল লিখন শুরু হলেও ওই বিধানসভা কেন্দ্রের কোথাও অসীমা ধীবরের নাম লেখা হয়নি। যেখানে লেখা হয়েছিল সেখানেও মুছে ফেলা হয়েছে, এমনটাই জানা যাচ্ছে।