বিজেপি ক্ষমতা দখল করলেই শান্ত হবে পাহাড়, বিস্ফোরক মন্তব্য দিলীপ ঘোষের

বাংলায় আসন্ন বিধানসভা ভোটের রণাঙ্গন প্রস্তুতির দৌড়ে নেমেছে রাজনৈতিক দলগুলি। বিশেষ করে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিজেপি এবং তৃণমূলের লড়াইয়ে রাজনৈতিক মহলে টানটান উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে। বাংলা দখলের লড়াইয়ে তৃণমূলকে একচুল জায়গাও ছেড়ে দিতে রাজি নয় কেন্দ্রীয় শাসক দল। আসন্ন একুশের নির্বাচনকে ঘিরে তাই ভোটের স্ট্রাটেজিতে কোনরকম খামতি রাখতে চাইছে না বিজেপি।

উত্তর থেকে দক্ষিণ, বাংলার প্রতিটি বুথ বিজেপির কাছে এখন ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। সম্প্রতি, দার্জিলিংয়ের গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার নেতা বিমল গুরুংয়ের সঙ্গে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বৈঠকে অংশগ্রহণ করেছেন। বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ এ প্রসঙ্গে রাজ্য সরকারের তীব্র সমালোচনা করলেন।

বুধবার মেদিনীপুরের বিদ্যাসাগর হলে দলীয় কর্মী সমর্থকদের সঙ্গে বিজয়া সম্মিলনীতে যোগদান করে মুখ্যমন্ত্রীর প্রতি কটাক্ষ করে তিনি বলেছেন, রাষ্ট্রদ্রোহীদের সঙ্গে আঁতাত করে পাহাড় দখলে রাখতে চাইছেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু, দার্জিলিঙে এবার আর তৃণমূলের প্রভাব খাটবে না। দিলীপের হুঁশিয়ারি, মুখ্যমন্ত্রী যতই চেষ্টা করুন, পাহাড়ের বাসিন্দারাই মুখ্যমন্ত্রীর পাশে থাকবেন না।

দিলীপ ঘোষের দাবি, বিজেপি ক্ষমতায় এলে পাহাড়ে শান্তি বজায় থাকবে। তার অভিযোগ, ক্ষমতা দখলের লড়াইয়ে নেমেছেন মুখ্যমন্ত্রী। বর্তমান সরকারের রাজত্বে পাহাড়ে অশান্তি ছড়াচ্ছে। ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধের উপক্রম। যার ফল ভুগতে হচ্ছে পাহাড়ে বসবাসকারী মানুষদের। দিলীপ ঘোষ আরও বলেছেন, আলোচনার মাধ্যমেই পাহাড়ে শান্তি ফেরানো সম্ভব। বিজেপি বর্তমানে সেই প্রচেষ্টাই চালাচ্ছে।