বিজেপি ক’র্মী’দে’র নিরাপত্তা দি’তে পা’র’ছে না দল, সর্বসমক্ষে স্বী’কা’র করলেন দিলীপ ঘোষ

একুশে বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশের পর থেকেই রাজ্য জুড়ে দলবদলের উল্টো হাওয়া বইতে শুরু করেছে। নির্বাচন পূর্বে তৃণমূল ছেড়ে একের পর এক নেতাকর্মী বিজেপি শিবিরে নাম লিখিয়েছিলেন। ফল প্রকাশের পরেই আবার বিজেপি ছেড়ে একের পর এক কর্মী সমর্থক তৃণমূল শিবিরে চলে আসছেন। এতেই কার্যত রাজ্য রাজনীতি উত্তাল রয়েছে। এর প্রকৃত কারণ উল্লেখ করলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

দিলীপ ঘোষের বক্তব্য, ভোটের ফল প্রকাশের পর বিজেপি কর্মী সমর্থকদের উপর অনেক অত্যাচার চলছে। অত্যাচার চালাচ্ছে রাজ্যশাসক দল। সেই অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে অনেকেই দল ছাড়তে বাধ্য হচ্ছেন। দিলীপ ঘোষের দাবি, নির্বাচনের পর যাদের উদ্দেশ্য সিদ্ধ হয়নি, তাদের মধ্য থেকে অনেকেই স্বার্থসিদ্ধির জন্য দল ত্যাগ করছেন।

তবে দলের এমনও বেশ কিছু সদস্য রয়েছেন যারা রাজ্য সরকারের অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে দল ত্যাগ করছেন বলে জানিয়েছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি। তার দাবি, যারা রাজ্য সরকারের অত্যাচারের শিকার হয়ে দলত্যাগ করছেন, তারা তাকে বলেই অন্য দলে গিয়েছেন। দিলীপ ঘোষের দাবি, দল তার কর্মী-সমর্থকদের উপযুক্ত নিরাপত্তা দিতে পারছে না। যে কারণে দলতাগ্যে বাধ্য হচ্ছেন অনেকেই।

দিলীপ ঘোষের এমন অকপট স্বীকারোক্তিতে কার্যত তার বিরুদ্ধেই সরব হয়েছেন দলের একাংশ। তাদের দাবি, রাজ্য সভাপতি যেখানে নিজেই স্বীকার করছেন যে তিনি দলীয় কর্মী সমর্থকদের নিরাপত্তা দিতে পারছেন না, সেখানে তার আর পদে থাকার অধিকার আছে কি? প্রশ্ন তুলেছেন বিজেপির একাংশ। কারণ যে রাজ্য সভাপতি দলীয় কর্মীদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে পারছেন না, তিনি রাজ্যের মানুষকে নিরাপত্তা কিভাবে দেবেন? প্রশ্ন থেকে যাচ্ছে।