করোনা রোগীদের সংস্পর্শে আসা সত্ত্বেও হয় নি কোনও পরীক্ষা, বিক্ষোভ পরিযায়ী শ্রমিকদের

করোনা রোগীদের সংস্পর্শে আসা সত্ত্বেও হয় নি শারিরীক পরীক্ষা

ঘটনাটি ঘটেছে বিহারের মুজাফফরপুরে। আসলে ঝামেলাটা বেঁধেছে পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে। করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ৩ জন পরিযায়ী শ্রমিক। কিন্তু তাদের সংস্পর্শে আসা শ্রমিকদের শারিরীক পরীক্ষা করা হয় নি কোনোভাবেই, এমনকি সেই সব জায়গা স্যানিটাইজ পর্যন্ত করা হয় নি। এই নিয়েই বাকি শ্রমিকরা শুরু করে বিক্ষোভ। আসলে এখন এই লক ডাউনের কারণে পরিযায়ী শ্রমিকদের অবস্থা একেবারে নাজেহাল। কারণ তারা খালি পেটে খোলা আকাশের নিচে রাত কাটাচ্ছে, একদিনে পরিবারের চিন্তা, হাতে নেই টাকা পয়সা এব দিক থেকেই তাদের নাজেহাল দশা।

তাই তারা কোনও উপায় না পেয়ে পায়ে হেটেই বাড়ি ফিরছে। কিন্তু এদিকে আবার কেন্দ্র তাদের জন্য ট্রেনের ব্যবস্থা করেছে, কিন্তু তাও সবাইকে এখন তাদের গন্তব্যে পৌছোনো যায় নি। এদিকে সরকারের তরফ থেকে বলা হয়েছে, শ্রমিকদের দৈনিক খাবার দিতে, কিন্তু সেটাও মানা হচ্ছে না কোনোভাবেই। তাই এই বিক্ষোভ পরিযায়ী শ্রমিকদের।

এদিকে বিভিন্ন রাজ্যের কোয়ারেন্টাইনে বিভিন্ন শ্রমিক আটকে আছে এখন। বিহারের মুজাফফরপুরে ১৬০ জন শ্রমিক আটকে আছেন। তাদের মধ্যে কয়েকজন আক্রান্ত হয়েছে, তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে, কিন্তু তাদের সাথে বাকি শ্রমিকেরা সুস্থ আছে কিনা সেটা ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে না, সেই সব জায়গা স্যানিটাইজ করা হয় নি, এমনকি তাদের শারিরীক পরীক্ষা পর্যন্ত করা হয় নি। এই নিয়ে বিডিও বলেন, আক্রান্তদের সংস্পর্শে যারা ইতিমধ্যে এসেছে তাদের আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে। আরও তাদের নিয়ে বিভিন্ন ব্যবস্থা নেওয়া হবে।