প্যাংগং লেকে চরম উত্তেজনা, তড়িঘড়ি জরুরি বৈঠকে প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং

ফাইল ছবি

পূর্ব লাদাখ সীমান্তে এখনো ঘাঁটি গেড়ে রয়েছে চীনের লাল ফৌজ বাহিনী। দফায় দফায় বৈঠকের মাধ্যমে উভয় রাষ্ট্রের সেনা আধিকারিকদের মধ্যে আলোচনার পরেও নিজ অবস্থান থেকে সরতে নারাজ চীনা সেনা। ফলে সীমান্ত উত্তেজনা সম্পর্কে ভারতের উদ্বেগ বাড়ছে। এই পরিস্থিতিতে ড্যামেজ কন্ট্রোলের উদ্দেশ্যে বৈঠকের আয়োজন করলেন কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং।

সম্প্রতি গোয়েন্দা সূত্রের খবর মিলেছে, লাদাখের প্রায় হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকায় নিজেদের আধিপত্য স্থাপন করেছে চীনা সেনা। প্যাংগংয়ের ফিঙ্গার পয়েন্ট এলাকাগুলিতে চীনা সেনার অবস্থান ভাবাচ্ছে ভারতের প্রতিরক্ষা দপ্তরকে। ফলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে লাদাখ সম্পর্কে ভবিষ্যতে কি কি সিদ্ধান্ত নেওয়া যায় সে সম্পর্কে আলোচনা করতেই একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকের আয়োজন করলেন কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী।

লাদাখের সীমান্ত পরিস্থিতি সম্পর্কে আলোচনা করতে কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সাথে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে বসতে চলেছেন বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর, সিডিএস বিপিন রাওয়াত, সেনাপ্রধান এমএম নারাভানে, ডিজি মিলিটারি অপারেশন লেফট্যানেন্ট জেনারেল পরমজিৎ সিং। এই বৈঠকের মাধ্যমেই তারা লাদাখ সম্পর্কে তাদের পরবর্তী স্ট্র্যাটেজি ঠিক করবেন বলে জানা গেছে। ফলে, সীমান্ত পরিস্থিতি বিবেচনা করে ভারতীয় প্রতিরক্ষা দপ্তরের এই বৈঠক অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

উল্লেখ্য, গত ২৯ এবং ৩০শে আগস্ট রাতে ভারতীয় ভূখণ্ড অনুপ্রবেশের চেষ্টা চালায় চীনা সেনাবাহিনী। তবে ভারতীয় সেনাবাহিনীর তৎপরতায় তাদের নিরস্ত্র করা সম্ভব হয়েছে। ভারতীয় সেনাবাহিনী সূত্রের খবর, প্যাঙ্গং হ্রদের দক্ষিণের পাহাড়ি এলাকায় ৫০০ জন চীনা সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। পরিস্থিতির গুরুত্ব বুঝে এবার দ্রুত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে চলেছে কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা দপ্তর।