বরফের অপেক্ষায় দার্জিলিং, বাগডোগরায় বন্ধ বিমান ওঠা নামা, জেনে নিন উত্তরবঙ্গ বাসী

গত মঙ্গলবার থেকেই বঙ্গে পুনরায় শীত প্রবেশ করেছে। শীত আরও বেশি ভালো ভাবে উপভোগ করার জন্য বাংলার পাহাড় প্রেমীরা ইতিমধ্যেই দার্জিলিঙে পাড়ি জমিয়েছেন। পাহাড় প্রেমীদের “স্নো ফল” তথা বরফপাতের উপর বরাবরই প্রবল আকর্ষণ থাকে। কিন্তু দার্জিলিংয়ে গিয়ে বরফপাত দেখার শখ কজনেরই বা হয়? আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা অবশ্য জানাচ্ছেন, দার্জিলিংয়ে এখন যারা পাড়ি জমিয়েছেন, তাদের সেই সৌভাগ্য হওয়ার প্রভূত সম্ভাবনা রয়েছে!

আজ সকাল থেকেই টাইগার হিলসে পর্যটকদের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। স্থানীয়রা আশা করছেন, আবহাওয়ার যে পরিস্থিতি তাতে বরফপাত হওয়ার পূর্ণ সম্ভাবনা রয়েছে। রাতের দিকে স্নোফল হলেও হতে পারে। তাই পর্যটকরা ভীষণ খুশি এবং আশাবাদী। তবে একদিকে যেমন স্নোফলের আশা রয়েছে অপরদিকে তেমনিই উত্তরবঙ্গের আবহাওয়া কিন্তু বেশ দুর্যোগপূর্ণ।

আজ সকাল থেকেই ঘন কুয়াশার মোড়কে মুড়েছিল উত্তরবঙ্গ। কুয়াশার পাশাপাশি মেঘাচ্ছন্ন আকাশ এবং তার সঙ্গেই কখনো হালকা ঝিরঝিরে বৃষ্টি, এই ছিল আজকের পাহাড়ের আবহাওয়া। শিলিগুড়ি, গোটা ডুয়ার্স, উত্তর দিনাজপুরের একাংশই আজ কুয়াশার চাদরে মুড়ে ছিল। এমন আবহাওয়ার দরুন আজ বাগডোগরা বিমানবন্দরে বিমান ওঠানামা বন্ধ ছিল।

বিমান বন্দর সূত্রে খবর, এদিন সারাদিনে ২১টি বিমান ওঠানামার কথা ছিল বাগডোগরা বিমানবন্দরে। তবে কুয়াশার জন্য বিমানবন্দরের দৃশ্যমানতা এতটাই কমে গিয়েছিল যে তা বিমান চালানোর পক্ষে অনুকূল ছিল না। আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর, পাহাড়ের এই আবহাওয়া আগামী ৪৮ ঘন্টায় একই রকম থাকবে। এদিকে ঘন কুয়াশার দরুন ডুয়ার্সের লাটাগুড়িতে একটি পথ দুর্ঘটনার খবর পাওয়া গিয়েছে।