ক্যান্সার আক্রান্ত ঐন্দ্রিলার মনোবল বাড়াতে ন্যাড়া হলেন বাবা, আবেগে ভাসলেন অভিনেত্রী

জ্বর সর্দি কাশির মত এখন ঘরে ঘরে ক্যান্সার ও যেন নিত্যদিনের অসুখের পর্যায়ে এসে পৌঁছেছে। জনসাধারণ থেকে শুরু করে সেলিব্রিটি, সকলেই হয়েছেন এই মারণ রোগের শিকার। খুব কম মানুষই এই রোগ থেকে বেরিয়ে আসতে পারেন, অর্থের পাশাপাশি দরকার অসম্ভব মনের জোর, তবে ক্যান্সারের মতো মারণ রোগ নিরাময় করতে পারে একজন মানুষ। তেমনই ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছেন ঐন্দ্রিলা শর্মা।ঐন্দ্রিলা শর্মা বাংলা ধারাবাহিকের খুব পরিচিত একজন মুখ। জিয়নকাঠি সিরিয়াল থেকে তিনি জনপ্রিয়তার শীর্ষে পৌঁছেছেন। কিছুবছর আগে তিনি একবার হয়েছিলেন শিরদাঁড়ার ক্যান্সারে। তখন অনেকটাই সুস্থ হয়ে গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু আরো একবার তাকে ঘায়েল করার জন্য ফুসফুসে ক্যান্সারের প্রকোপ ঘটলো তার শরীরে।

জানতে পারা গেছে যে, ফুসফুসে প্রায় ৭ সেন্টিমিটার এর মত একটি টিউমার হয়েছে।অসুস্থ হওয়া কালীন তার পাশে সর্বদা দেখা গেছে তার অভিনেতা তথা বন্ধুকে, তার নাম সব্যসাচী চৌধুরী। সব্যসাচী অভিনয় করেছেন বামাক্ষ্যাপা সিরিয়ালের বামাক্ষ্যাপার চরিত্রে। অসুস্থ থাকাকালীন দিল্লির একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি।

সুস্থ হতেই আরো একবার কলকাতায় ফিরে শুটিং করতে শুরু করে দিয়েছেন তিনি। সম্প্রতি তার সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট দেখে সকলেরই চোখের জল চলে আসে। কেমোথেরাপির জন্য নিজের চুল কেটে ফেলতে হয়েছিল তাকে। নতুন রূপে যাতে তাকে কোনো কষ্ট না পেতে হয় তার জন্য তার বাবাও কেটে ফেলেন তার সব চুল।

বাবার ন্যাড়া হয়ে যাবার ছবি সম্প্রতি শেয়ার করলেন ঐন্দ্রিলা। ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন, বাবা কখনো মুখে বলে না আমাকে কতটা ভালোবাসে। নিরবে প্রাণ দিয়ে ভালোবেসে যায়।বাবাকে দেখলাম হঠাৎ সব চুল কেটে ফেলতে। বাবারা বোধহয় এমনই হয়। সত্যি আমি আশীর্বাদ ধন্য। বাবাকে ধন্যবাদ দেবার কোন ভাষা নেই আমার কাছে।