দেশবাসীকে এখনও নোট বাতিলের ফল ভুগতে হচ্ছে, দেশের অর্থাবস্থা নিয়ে ফের তোপ রাহুলের

বিগত বেশ কয়েক মাস ধরে কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতিটি পদক্ষেপের জোর বিরোধিতা করে চলেছেন কংগ্রেস দলনেতা রাহুল গান্ধী। কখনো ভারত-চীন সীমান্ত সংঘর্ষ নিয়ে তো কখনও দেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে, আবার কখনো ভারতের নিম্নমুখী অর্থনীতি সম্বন্ধে, কেন্দ্রের প্রতিটি পদক্ষেপের সমালোচনা করেছেন তিনি। সম্প্রতি, দেশের ক্রমহ্রাসমান জিডিপি এবং নোট বন্দি সম্পর্কে আবারো কেন্দ্রকে কটাক্ষ করলেন রাহুল গান্ধী।

২০১৬ সালের ৮ই নভেম্বর, রাতারাতি পাঁচশো এবং হাজার টাকার নোট বাতিল করে দেয় মোদি সরকার। এর ফলে দেশের প্রত্যেকটি মানুষকে বাতিল নোট নিয়ে ব্যাংকে হাজিরা দিতে হয়। চার বছর আগে মোদি সরকারের সেই পদক্ষেপের ফলাফল সম্পর্কে প্রশ্ন তুলেছেন রাহুল গান্ধী। তার প্রশ্ন, নোট বাতিলের ফলে দেশের সাধারন, গরিব, কৃষক সম্প্রদায়ের কি লাভ হয়েছে?

মোদি সরকারের বিরুদ্ধে রাহুল গান্ধীর সরাসরি কটাক্ষ, এই সরকার আসলে কৃষক, মজদুর এবং ছোট ব্যবসায়ী মুক্ত ভারত গঠনের স্বপ্ন দেখে। রাহুল গান্ধীর মতে, আজকে দেশের জিডিপি যে এত নিচে নেমে গেছে, তার পেছনে দায়ী মোদি সরকারের নোট বন্দির পদক্ষেপ। নোট বন্দির পদক্ষেপটিকে সম্পূর্ণ ব্যর্থ বলে মনে করেন রাহুল গান্ধী। সম্প্রতি দেশের অর্থনীতির হাল জনসমক্ষে তুলে ধরতে “অর্থব্যবস্থা কি বাত” নামক এক নতুন ভিডিও সিরিজের ব্যবস্থা করেছেন কংগ্রেস দলনেতা।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভিডিও সিরিজের দ্বিতীয় পর্ব নিয়ে হাজির হয়েছেন রাহুল গান্ধী। দ্বিতীয় পর্বের বিষয় নোট বন্দি এবং ভারতের অর্থনীতি। রাহুলের দাবি, এই সিদ্ধান্তে দেশের সাধারণ মানুষের কোনো উপকার হয়নি। বরং দেশের শিল্পপতিদের ঋণ মুকুব করা হয়েছে, তাও সাধারণ মানুষের টাকা নিয়ে। রাহুলের অভিযোগ, দেশের অসংগঠিত ক্ষেত্র থেকে টাকা নিয়ে ব্যাংক বোঝাই করাই ছিল মোদি সরকারের নোট বন্দির একমাত্র লক্ষ্য। যার ফলে অসংগঠিত ক্ষেত্রগুলি দুর্বল হয়ে পড়েছে।