নিষিদ্ধ অ্যাপ টিকটক নিয়ে মুখ খুললেন সংস্থা, পরিস্থিতি নিয়ে ভাষণ দেবেন CEO

টিকটক সহ ৫৯ টি চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছে কেন্দ্র সরকার। এই অ্যাপগুলি নিষিদ্ধ করার কারণ হিসেবে ভারত সরকারের তরফ থেকে বলা হয়, এই চিনা অ্যাপগুলির সার্ভার ভারতের বাইরে রয়েছে, যার মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের তথ্য চুরি করা হচ্ছে৷ টিকটকের ভারতীয় শাখার প্রধান নিখিল গান্ধী টুইটারে বলেছেন, সরকারের তরফ থেকে টিকটক নিষিদ্ধ করা হয়েছে। সরকারের সঙ্গে কথাবার্তা চলছে বলে জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, ভারতীয় আইন মেনেই ডেটা সংরক্ষণ করা হয়। ভারতীয় গ্রাহকদের ডেটা চিন বা অন্য কোনও সরকারের সঙ্গে আদান প্রদান করা হয় না। ভবিষ্যতেও এরকম কিছু করা হবেনা বলে জানান তিনি। তিনি আরও বলেন, ভারতের ১৪ টি ভাষায় টিকটক ব্যবহারের সুযোগ দিয়ে ইন্টারনেট ব্যবহারকে গণতান্ত্রিক করা হয়েছে। ভারতের টিকটকে প্রায় ২ হাজার কর্মী কাজ করেন। সরকারের এই সিদ্ধান্তে সেই কর্মীদের একটা বড় অংশও উদ্বিগ্ন।

ওই ২০০০ কর্মী ভারত সরকারের সমস্ত নিয়মকানুন মেনে কাজ করতে বদ্ধপরিকর। তবে মঙ্গলবার টিকটক ইন্ডিয়ার প্রধান নিখিল গান্ধী আশ্বাস দিয়েছেন, টিকটক কর্মী কারোরই চাকরি যাবেনা। ভারতে এই অ্যাপ নিষিদ্ধ হলেও কর্মী ছাটাই করবেনা টিকটক। এই পরিস্থিতি কর্মীদের মনোবল বাড়াতে বুধবার নিজের বক্তব্য জানাবেন টিকটকের সিইও কেভিন মায়ের। নিখিল গান্ধী আতঙ্কে থাকা কর্মীদের বলেছেন, ভারত সরকারের উদ্বেগ রয়েছে এই অ্যাপ নিয়ে, কি কি কারন রয়েছে তা জানতে কোম্পানি যোগাযোগ রাখছে। ভারত সরকারের উদ্বেগ দূর করার চেষ্টাও করা হচ্ছে, সংস্থার থেকে আশ্বাস কর্মীদের।