বন্ধ হো’ক “শ্রীময়ী”, ধারাবাহিকে দুটি বি’য়ে নিয়ে চটেছেন নেটিজেনরা, খা’রা’প প্র’ভা’ব পড়ছে সমাজে!

এক সময় এই শ্রীময়ী নিয়ে কতই না ভালোবাসা ছিল মানুষের মধ্যে। কিন্তু যত দিন যাচ্ছে তত বেশি ঘৃণা তৈরি হয়ে যাচ্ছে এই সিরিয়ালের প্রতি মানুষের। একটি সিরিয়াল কিভাবে এতটা জগন্য হয়ে যেতে পারে, তা কিছুতেই ভেবে কূলকিনারা পাচ্ছে না দর্শকরা। ধারাবাহিক শুরু হয়েছিল এক গৃহবধুর জীবনে বেঁচে থাকার লড়াই নিয়ে। স্বামী এবং শ্বশুর বাড়ির সকলের মন জয় করে চলার যে আপ্রাণ চেষ্টা ছিল শ্রীময়ীর, তা দেখে এক কথায় এই চরিত্রকে ভালবেসে ফেলেছিলেন সকলে। কিন্তু আস্তে আস্তে গল্পের মোড় অন্যদিকে ঘুরে যেতে শুরু করে দেয়।

গল্পে একাধিক বিয়ে এবং একাধিক প্রেম দেখানো হয় বারবার। দীর্ঘদিনের বন্ধু রোহিত সেনকে বিয়ে করে এখন সুখে সংসার করছে শ্রীময়ী। অন্যদিকে শ্রীময়ীর স্বামীর ঘর বেঁধেছেন আলাদা করে। শ্রীময়ীর বিয়ে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তৈরি হয়েছে বিতর্ক। একপক্ষ যারা শ্রীময়ীকে সমর্থন করেছেন, আবার অন্য পক্ষের বিপক্ষে কথা বলছেন। যে ধারাবাহিকটি টিআরপির তালিকায় প্রথম দিকে থাকতো, তাকে এখন খুঁজেই পাওয়া যাচ্ছে না সেই লিস্টে।

চিত্রনাট্যকার লীনা গঙ্গোপাধ্যায়ের লেখনী নিয়ে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন। শুধু একাধিক বিয়ে দেখানো ছাড়া কি একটি সিরিয়াল দেখানো যায় না? তাকেই পরিবারের প্রত্যেক সদস্যের দুটি করে বিয়ে, কিভাবে সম্ভব? গল্পের মোড় ঘুরিয়ে দেওয়ার অন্য অনেক রাস্তা থাকে, তাহলে কেন বহুবিবাহ পথ অবলম্বন করতে হবে চিত্রনাট্যকারকে?

অনেকেরই মত, এর প্রভাবে বর্তমান প্রজন্মের ওপর একটি খারাপ প্রভাব পড়ছে। বাড়িতে বসে সকলের সঙ্গেই সিরিয়াল আর দেখা যায় না, এমন মন্তব্য করেছেন অনেকে। শ্রীময়ী ধারাবাহিক অবিলম্বে বন্ধ করে দেওয়া হোক, এই দাবিতে সোচ্চার হয়েছেন একাধিক মানুষ। তবে দর্শকদের এই সমালোচনা নিয়ে কোন মাথাব্যাথা নেই ইন্দ্রানী হালদার অথবা টোটা রায়চৌধুরীর। ধারাবাহিক নিয়ে তাঁরা আজও আশাবাদী।

অভিনেতা, অভিনেত্রী বক্তব্য, বাংলা ধারাবাহিক একজন মহিলার এই পদক্ষেপ দেখাতে পেরে সত্যিই আমরা খুশি। আজও বহু মহিলা শুধুমাত্র সমাজের ভয়ে নিজের জীবন নতুন করে বাঁচার চেষ্টা করে না। এই ধারাবাহিকে দেখে যদি একজন মানুষও যদি নিজের জীবন নিয়ে নতুন করে ভাবতে পারেন, সেখানেই আমাদের সার্থকতা।