প্রেসক্রিপশন ছাড়া মিলবে না সিগারেট, ডাক্তার অনুমতি দিলেই করা যাবে ধূমপান

এবার থেকে আর প্রেসক্রিপশন ছাড়া সিগারেট মিলবে না। অর্থাৎ ডাক্তার অনুমতি দিলে তবেই সিগারেট কেনা যাবে। নয়তো সিগারেটের দোকান থেকে খালি হাতেই ফিরতে হবে। এই পরিকল্পনা অবশ্য এদেশের নয়। সুদূর অস্ট্রেলিয়ায় সম্প্রতি এরকমই একটি নিয়ম চালু করা হয়েছে, যেখানে ডাক্তারের প্রেসক্রিপশনে সিগারেট খাওয়ার অনুমতি ছাড়া গ্রাহককে সিগারেট বিক্রি করবেন না বিক্রেতারা।

উল্লেখ্য বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ায় ধূমপায়ীর সংখ্যা সে দেশের জনসংখ্যার তুলনায় ১৫ শতাংশ। তবে ধূমপায়ীদের সংখ্যা একেবারে শূন্যে নামিয়ে আনতে তৎপর সে দেশের প্রশাসন। ২০২৫ এর মধ্যেই ধূমপায়ীদের সংখ্যা ১০ শতাংশে নামিয়ে আনার লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার সরকার। রিপোর্ট অনুযায়ী, বর্তমানে প্রতি সাত জনের মধ্যে একজন ধূমপায়ী সেদেশে মৃত্যুবরণ করছেন বলে জানা গেছে।

অস্ট্রেলিয়ার ধূমপায়ীদের উপর গবেষণা চালাচ্ছে ইউনিভার্সিটি অফ কুইন্সল্যান্ড এন্ড ন্যাশনাল হেলথ এন্ড মেডিকেল রিসার্চ কাউন্সিল। এই সমস্যার প্রধান লক্ষ্য হলো অস্ট্রেলিয়াকে সিগারেট মুক্ত করা। ইউনিভার্সিটির অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর কোরাল গার্টনার বলেছেন, তামাক নিয়ন্ত্রণের নিরিখে সারা বিশ্বের মধ্যে সবথেকে বেশি গুরুত্ব আরোপ করেছে অস্ট্রেলিয়া।

বাসিন্দাদের মধ্যে ধূমপানের প্রবণতা নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য বিভিন্ন পরিকল্পনা গ্রহণ করা হচ্ছে অস্ট্রেলিয়াতে। গার্টনারের বক্তব্য অনুসারে, সরকার, ব্যবসায়ী এবং সাধারণ মানুষের সৎ প্রচেষ্টা থাকলে তবেই তামাক বর্জিত সমাজ গড়ে তোলা সম্ভব। অস্ট্রেলিয়ায় ইতিমধ্যেই তামাকজাত বস্তুর ক্রয়-বিক্রয় নিয়ন্ত্রণের মধ্যে আনা হয়েছে। নির্দিষ্ট কিছু ব্যবসায়ীকেই তামাকজাত পদার্থ বিক্রয়ের অনুমতি প্রদান করা হয়েছে।