ক’রোনা পরবর্তী সময়ে বিশ্বের দরবারে কোণঠাসা চীন, বেজায় অস্বস্তিতে জিংপিং

বিগত ১০ মাস ধরে, করোনা জ্বরে ভুগছে পৃথিবী। চীনের উহান ল্যাব থেকেই যে এই মারাত্মক প্রাণঘাতি ভাইরাস সারাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। বিশ্বের একাংশ মনে করেন, চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং এর ব্যর্থতার কারণেই সারাবিশ্বে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে করোনা। এই কারণে শি জিনপিংয়ের ওপর বেশ ক্ষুব্ধ তারা। সম্প্রতি, মার্কিন সংস্থা Pew Research Center বিশ্বের ১৪ টি দেশের মানুষের উপর সমীক্ষা চালিয়ে এমন তথ্যই প্রকাশ করলো।

Pew Research Center অস্ট্রেলিয়া, ব্রিটেন, জার্মানি মতো বিশ্বের ১৪টি দেশের প্রায় ১৫ হাজার মানুষের উপর একটি সমীক্ষা চালায়। গত জুন মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে আগস্ট মাস পর্যন্ত টেলিফোনের মাধ্যমে চীনের প্রতি তাদের মনোভাব জানতে চাওয়া হয়। রিপোর্ট অনুসারে, বেশিরভাগ মানুষই মনে করেন বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারীর সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার পেছনে চিনকেই দোষী মনে করেন তারা।

মঙ্গলবার সংস্থার তরফ থেকে সমীক্ষার রিপোর্ট পেশ করা হয়েছে, তা থেকে স্পষ্ট এই যে অস্ট্রেলিয়া, ব্রিটেন এবং জার্মানির বাসিন্দারা চীনের প্রতি সবথেকে বেশি নেতিবাচক মনোভাব পোষণ করেন। জুন মাস থেকে আগস্টের মধ্যে চীনের প্রতি বিদ্বেষ পোষণকারী অস্ট্রেলিয়ার বাসিন্দাদের সংখ্যা প্রায় ২৪ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। বর্তমানে সে দেশের প্রায় ৮১ শতাংশ মানুষ চীনকে অপছন্দ করছেন বলে দাবি করছে রিপোর্ট।

অস্ট্রেলিয়ার পাশাপাশি ব্রিটেনের বাসিন্দারা যারা চীনকে অপছন্দ করেন, তাদের সংখ্যাও প্রায় ১৯ শতাংশ বেড়েছে। পাশাপাশি, মার্কিনিদের মধ্যেও চীনের বিরুদ্ধে মত পোষণকারীদের সংখ্যা বেড়েছে ২০ শতাংশ। সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ৭৮ শতাংশ মানুষ মনে করেন চীনের প্রেসিডেন্ট বিশ্বের জন্য ভালো কিছুই করতে পারেননি। উল্লেখ্য, সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের অপছন্দের তালিকায় চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের পরেই রয়েছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্থান।