ক’রো’না’য় না’জে’হা’ল দিল্লি, বা’ধ্য হয়ে ল’ক’ডা’উ’ন ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

মহামারী করোনার গ্রাসে রাজধানী দিল্লি। রাজধানী বাঁচাতে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল এবার লকডাউন ঘোষণা করলেন। তিনি জানিয়ে দিয়েছেন সোমবার রাত ১০টা থেকে ২৬ এপ্রিল সকাল ৬টা পর্যন্ত দিল্লিতে লকডাউন চলবে। তবে চিকিৎসা, খাদ্য সরবরাহের মতো জরুরি পরিসেবার ক্ষেত্রে কিন্তু ছাড় থাকছে। দিল্লি সরকারের তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, ৫০ জন সদস্য অনুষ্ঠান বাড়িতে উপস্থিত থাকতে পারবেন।

সোমবার দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল একটি সাংবাদিক বৈঠকের আয়োজন করে লকডাউনের সিদ্ধান্তের সম্পর্কে জানিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, দিল্লির ক্রমবর্ধমান করোনা গ্রাফ বিবেচনা করেই লকডাউনের পথে হাঁটছে সরকার। এদিন তিনি বলেন, “গত ২৪ ঘণ্টায় দিল্লিতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৩ হাজার ৫০০ জন। যদি দৈনিক ২৫ হাজার মানুষ আক্রান্ত হন, সেক্ষেত্রে পরিকাঠামো ভেঙে পড়বে।”

তিনি জনগণকে সতর্ক করে বলেন, করোনা ভয়াবহতার সমস্ত মাত্রা ছাড়িয়ে যাচ্ছে। এতদিন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছিল। এবার তারই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে মৃত্যুর হার বাড়ছে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের রিপোর্ট বলছে, সোমবার সকালেও দেশে একদিনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যাটা পৌনে তিন লাখের কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছে। প্রায় ষোলোশোরও বেশি মানুষ একদিনে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন।

মহারাষ্ট্র, দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, গুজরাট, মধ্যপ্রদেশের মতো রাজ্যগুলির অবস্থা ভয়াবহ হয়ে উঠেছে। অপরপক্ষে রাজস্থান, অন্ধ্রপ্রদেশ, কেরল, কর্ণাটক, তামিলনাড়ু, বিহার, বাংলার পরিস্থিতিও ক্রমশ নাগালের বাইরে চলে যাচ্ছে।