প্র’তা’র’ণা’র শি’কা’র শুভশ্রীর দিদি, বধূ নির্যাতনের অভিযোগে ধৃ’ত অভিনেত্রীর জামাইবাবু

চলতি বছরের এপ্রিল মাসে শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়ের দিদি দেবশ্রী ভালোবেসে বিয়ে করেন অমিত ভাটিয়া কে। কিন্তু কিছু মা যেতে না যেতেই প্রতারণা এবং বিশ্বাস ভঙ্গ সহ একাধিক অভিযোগে গ্রেপ্তার হলেন দেবশ্রী গঙ্গোপাধ্যায় এর স্বামী অমিত ভাটিয়া। দেবশ্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে তার স্বামীকে বাগুইআটি চ্যাংড়া থেকে গ্রেফতার করেছে টেকনো সিটি থানার পুলিশ। ২ রা এপ্রিল নিজের দিদির বিয়ের ছবি ইনস্টাগ্রামে আপলোড করেছিলেন শুভশ্রী। সেই সময়ে ব্যারাকপুরের নির্বাচনের কাজে ব্যস্ত ছিলেন বিধায়ক রাজ চক্রবর্তী তাই সেই বিয়েতে সেইভাবে উপস্থিত থাকতে পারেননি তিনি। বিয়ের প্রায় আড়াই মাস পর স্বামীর বিরুদ্ধে প্রতারণা এবং বিশ্বাস ভঙ্গ সহ একাধিক অভিযোগ এনেছেন দেবশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়।

সাত বছর আগে অফিসের কাজের সূত্রে অমিত ভাটিয়া সঙ্গে আলাপ হয়েছিল দেবশ্রী গঙ্গোপাধ্যায় এর। কিছুদিনের মধ্যেই তাদের মধ্যে বন্ধুত্ব তৈরি হয়। কিন্তু সেই সময়ে তারা দুজনেই ভিন্ন সম্পর্কে ছিলেন। তাই বন্ধুত্বের মধ্যে গড়ে ওঠে তাদের মধ্যে অন্য সম্পর্ক। কত ভ্যালেন্টাইন্স ডেতে অমিত দেবশ্রীকে প্রপোজ করে এবং এপ্রিল মাসে ঘরোয়া ভাবে বিবাহ সেরে নেন দুজনে।

এই প্রসঙ্গে পুলিশ সূত্রে খবর পাওয়া গেছে, বিয়ের ১০ দিন পর থেকেই নাকি অত্যাচার শুরু হয়ে যায় অমিতের। অমিতের এই অপকর্মের তাকে মডর দিতেন তার মা দিপালী ভাটিয়া। পরিস্থিতি একেবারে সহ্য সীমার বাইরে চলে যাবার পর টেকনো সিটি থানায় স্বামীর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন দেবশ্রী। অভিযোগের ভিত্তিতে অমিত ভাটিয়া কে গ্রেফতার করা হয়। গত শনিবার বারাসত আদালতে তোলা হয় তাকে। দেবশ্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে অমিতের বিরুদ্ধে খোঁজখবর নিতে গিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে উঠে এসেছে। আমি তার বিরুদ্ধে নাকি এর আগেও একটি ধর্ষণের অভিযোগ রয়েছে। যদিও সেই মামলায় জামিনে মুক্ত হয়েছিলেন তিনি। এই ঘটনায় আরও বেশি তদন্ত করার জন্য পদক্ষেপ নিয়েছেন পুলিশ।