গভীর নিন্মচাপ, জেলায় জেলায় ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা, জানিয়ে দিল হাওয়া অফিস

আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে জানা গেল বর্ষা ঘনিয়ে আসছে, আর বেশী দেরী নেই রাজ্যে বর্ষা আসতে। বুধবার সন্ধ্যা থেকেই অনেক জায়গায় ভারী বৃষ্টি হয়েছে। বিশেষ করে পশ্চিমের জেলাগুলোতে সব থেকে বেশী প্রভাব পরেছে। এদিকে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ সেই সব জায়গায় হালকা মাঝারী বৃষ্টি হয়েছে। তবে কলকাতার তাপমাত্রা এই বৃষ্টির কারণে অনেকটাই তারতম্য ঘটেছে। আর সেটার ফলেই দক্ষিণ বঙ্গের মানুষ অনেকটাই অস্বস্তিতে ভুগছে।

আজ কলকাতার যেসব জায়গায় বৃষ্টি হয় নি, সেখানে তাপমাত্রা অনেকটাই বৃদ্ধি পেয়েছে। আর সেখানে তাপমাত্রা ৩৪ ডিগ্রী পর্যন্ত বিরাজ করছে। এদিকে আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, দক্ষিণ বঙ্গের বিভিন্ন জায়গায় কাল বৈশাখীর সম্ভাবনা আছে অনেকটাই। এই তাপমাত্রার তারতম্যের কারণে এখন আবহাওয়া অনেকটাই ঊর্ধ্বমুখী। বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ অনেকটাই বেশী, সাথে ভ্যাপসা গরম ও আর্দ্রতা জনিত অস্বস্তি।

এখন সর্বোচ্চ বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ ৯০%। আগামী কয়েকদিন রাজ্য জুড়ে ভারী ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে। কারণ এখন প্রচুর পরিমাণে রাজ্যে ঢুকছে জলীয় বাষ্প। আর সেইটাই ঝড় বৃষ্টির কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে। পশ্চিমের জেলাগুলোতে আগামী কয়েকদিন সব থেকে বেশী প্রভাব পরবে। সাথে উপকূলের ওপরে তো আছেই। ভারী ঝড় বৃষ্টি, সাথে ঝড়ো হাওয়া রাজ্যে বইবে। দক্ষিণ বঙ্গের সাথে উত্তর বঙ্গের বিভিন্ন জায়গায় বিশাল প্রভাব পরতে চলেছে।

এদিকে দেশে সবার আগে বর্ষা ঢুকছে আন্দামান নিকোবরে। সেখানে আগামী ১৬ তারিখ থেকে প্রবল বেগে শুরু হবে বৃষ্টি। এবার দেশের বিভিন্ন জায়গায় স্বাভাবিক সময়েই বর্ষা ঢুকছে । রাজ্যে আগামী ১ জুন থেকে ১১ জুনের মধ্যে বর্ষা প্রবেশ করবে। কেরালার বিভিন্ন জায়গায় এবার একেবারে সঠিক সময়েই হবে বর্ষা। তবে আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে দক্ষিণ পূর্ব বঙ্গোপসাগরে তৈরী হচ্ছে একটি গভীর নিন্মচাপ। এই নিন্মচাপ আগামী দিনে অগ্রসর হবে, আর সেটা মধ্য, দক্ষিণ পশ্চিম, পশ্চিম মধ্য বঙ্গোপসাগরের দিকে অগ্রসর হবে। এর ফলে পশ্চিম বঙ্গে ব্যাপক প্রভাব পরবে।

সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন